kalerkantho

সোমবার ।  ১৬ মে ২০২২ । ২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ । ১৪ শাওয়াল ১৪৪৩  

হাইকোর্টে সিটিটিসির প্রতিবেদন

উগ্রবাদ ছড়াচ্ছেন রাজারবাগের পীর বদলাতে চান ৪ জেলার নাম

নিজস্ব প্রতিবেদক   

৬ ডিসেম্বর, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



রাজধানীর রাজারবাগ দরবার শরিফের পীর দিল্লুর রহমান ও তাঁর অনুসারীরা স্বাধীনতার স্থপতি ও জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মস্থান গোপালগঞ্জের নাম পরিবর্তন করে গোলাপগঞ্জ করে তাঁদের পত্রিকা দৈনিক আল ইহসান ও মাসিক আল বাইয়্যিনাতের মাধ্যমে প্রচার করছেন। এ ছাড়া নারায়ণগঞ্জ জেলার নাম পরিবর্তন করে নূরানীগঞ্জ, ঠাকুরগাঁও জেলার নাম পরিবর্তন করে নূরগাঁও ও ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নাম পরিবর্তন করে আমানবাড়িয়া করার প্রস্তাব দিয়ে তাঁরা নিজেদের সাম্প্রদায়িক মনোভাব সারা দেশের সাধারণ মানুষের মধ্যে দেওয়ার চেষ্টা করেছেন।

গতকাল রবিবার হাইকোর্টে দাখিল করা তদন্ত প্রতিবেদনে এসব তথ্য জানিয়েছে ঢাকা মহানগর পুলিশের কাউন্টার টেরোরিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম (সিটিটিসি) ইউনিট।

আদালতের নির্দেশনায় রাজারবাগের পীরের অনুসারীদের বিরুদ্ধে জঙ্গি সম্পৃক্ততা নিয়ে তদন্তে নামে সিটিটিসি।

বিজ্ঞাপন

তদন্ত শেষে হাইকোর্টে প্রতিবেদন দাখিল করা হয়। হাইকোর্টের বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মো. মোস্তাফিজুর রহমানের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চে এসংক্রান্ত প্রতিবেদন উপস্থাপন করা হয়। পরে ওই দরবারের বিষয়ে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগকে (সিআইডি) প্রতিবেদন দিতে বলা হয়েছে। এ বিষয়ে শুনানির জন্য আগামী ১৪ ডিসেম্বর দিন ঠিক করেছেন আদালত।

প্রতিবেদনে বলা হয়, ঐতিহাসিকভাবে বাংলাদেশের মানুষ ধর্মপ্রাণ ও কিছু কিছু ক্ষেত্রে ধর্মান্ধ। মানুষের এই ধর্মানুভূতিকে কাজে লাগিয়ে এই পীর ও তাঁর দরবার শরিফ সামাজিকভাবে কুসংস্কার, ধর্মীয় উগ্রবাদ ও জঙ্গিবাদকে ছড়িয়ে দিচ্ছেন। পীর দিল্লুর রহমানের দরবার থেকে প্রকাশিত আলোচিত দুটি পত্রিকা ‘মাসিক আল বাইয়্যিনাত ও দৈনিক আল ইহসান’-এর মাধ্যমে গুটিকয়েক ধর্মভিত্তিক রাজনৈতিক দলের সমালোচনা করলেও প্রকৃতপক্ষে তাদের প্রচার-প্রচারণার মাধ্যমে নানাভাবে ধর্মীয় উগ্রবাদ ও জঙ্গিবাদ, ধর্মীয় কুসংস্কার ও সাম্প্রদায়িকতার বিস্তার ঘটছে। তাঁদের এসব কার্যক্রম সরাসরি সরকারি নীতিমালা, দেশের আইন, সংবিধান ও মুক্তিযুদ্ধের মূল চেতনার সঙ্গে সাংঘর্ষিক এবং সামাজিক ও সাম্প্রদায়িক সমপ্রীতিবিরোধী। দেশের বিভিন্ন থানায় রাজারবাগের পীর ও তাঁর মুরিদদের বিরুদ্ধে করা মামলা ও মামলাগুলোর তদন্তে এর প্রমাণ পাওয়া যায়। প্রতিবেদনটি আমলে নিয়ে জঙ্গি সম্পৃক্ততার অভিযোগ থাকায় রাজারবাগ দরবার শরিফ নজরদারিতে রাখতে  সিটিটিসি ইউনিটকে নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। একই সঙ্গে সিআইডি ও কাউন্টার টেরোরিজমের ইউনিটির প্রতিবেদনের জঙ্গি সম্পৃক্ততাসহ বেশ কিছু অভিযোগ ওঠায় দিল্লুর রহমানসহ ত*ার অনুসারীদের বিরুদ্ধে ভুক্তভোগীরা চাইলে মামলা করতে পারবেন।



সাতদিনের সেরা