kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ৩০ জুন ২০২২ । ১৬ আষাঢ় ১৪২৯ । ২৯ জিলকদ ১৪৪৩

গৃহকর্মী হত্যায় দম্পতি গ্রেপ্তার

লাশ ফেলা হয় দিয়াবাড়ীর ঝাউবনে

মোমিনুল ঢাকায় রিকশা চালান এবং স্ত্রী গৃহকর্মীর কাজ নেন নিকেতনে। সাত হাজার টাকা বেতনের কথা থাকলেও মাত্র এক হাজার টাকা দিতেন গৃহকর্তা

নিজস্ব প্রতিবেদক   

৬ ডিসেম্বর, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



রাজধানীর উত্তরার দিয়াবাড়ীর ঝাউবন থেকে গত বৃহস্পতিবার উদ্ধার হওয়া অচেনা তরুণীর লাশের রহস্য ভেদ করেছে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)। লাশটি রাজধানীর গুলশানের নিকেতন এলাকার একটি বাসার গৃহকর্মী পারভিন ওরফে ফেন্সির (৩০)।

সন্দেহ ও দাম্পত্য কলহের জের ধরে গত বুধবার নির্যাতন চালিয়ে তাঁকে হত্যা করা হয়। হত্যার পর চালকের সহায়তায় লাশ গুম করতে উত্তরার দিয়াবাড়ীর ঝাউবনে ফেলে আসে তারা।

বিজ্ঞাপন

গত শনিবার নিকেতনের ৬ নম্বর সড়কের ১৫ নম্বর বাড়ির এ/১ নম্বর ফ্ল্যাট থেকে গৃহকর্তা সৈয়দ জসীমুল হাসান (৬৩) ও গৃহকর্ত্রী সৈয়দা সামিনা হাসানকে (৬০) গ্রেপ্তার করেছে পিবিআই। এ ঘটনায় শনিবারই তুরাগ থানায় হত্যা মামলা করেছেন ফেন্সির স্বামী রিকশাচালক মোমিনুল।

গতকাল রবিবার দুপুরে রাজধানীর আগারগাঁও ৬০ ফিট এলাকায় পিবিআই কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে বিশেষ পুলিশ সুপার জাহাঙ্গীর আলম অভিযানের ব্যাপারে বিস্তারিত জানান। তিনি বলেন, ফেন্সি দিনাজপুর চিরিরবন্দর আলোকডিহি সরকারপাড়ার রমজান আলীর মেয়ে। ফেন্সির স্বামী মোমিনুল তাঁকে নিয়ে ঢাকায় আসেন। দেড় বছর আগে মোমিনুল নিজে রিকশা চালাতে শুরু করেন এবং স্ত্রী গৃহকর্মীর কাজ নেন নিকেতনে। সাত হাজার টাকা বেতনের কথা থাকলেও মাত্র এক হাজার টাকা দিতেন গৃহকর্তা। একদিন ফেন্সি ফোন করে স্বামীকে জানান, তাঁকে বেধড়ক মারপিট করা হয়। মোমিনুল স্ত্রীকে দেখতে গিয়েও ফিরে আসেন। দেখা করতে দেননি গৃহকর্ত্রী। গত অক্টোবরে গুলশান থানায় একটি সাধারণ ডায়েরিও (জিডি) করেছিলেন মোমিনুল। এরপর গ্রামের বাড়ি ফিরে যান তিনি। পিবিআইয়ের তদন্তদল স্বজনদের মাধ্যমে লাশের পরিচয় শনাক্ত করে।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের বরাত দিয়ে বিশেষ পুলিশ সুপার বলেন, গত সোমবার সকাল ৯টার দিকে অবৈধ সম্পর্কের সন্দেহ ও ঝগড়াঝাটির একপর্যায়ে গৃহকর্ত্রী সৈয়দা সামিনা হাসান লাঠি দিয়ে ফেন্সিকে মারধর করলে তিনি মারা যান। এরপর গৃহকর্তা ও গৃহকর্ত্রী লাশ গুম করতে গাড়িচালক রমজান আলীর সহায়তায় প্রাইভেট কারে করে তুরাগ দিয়াবাড়ী এলাকায় ঝাউবনে ফেলে আসেন। ঘটনাস্থল থেকে প্রাইভেট কার, একটি লাঠি ও একটি বিছানার চাদর জব্দ করা হয়েছে।



সাতদিনের সেরা