kalerkantho

সোমবার ।  ১৬ মে ২০২২ । ২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ । ১৪ শাওয়াল ১৪৪৩  

লক্ষ্মীপুরে প্রসূতির মৃত্যুতে ভাঙচুর

সিভিল সার্জনের বিরুদ্ধে অবহেলার অভিযোগ

লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি   

৬ ডিসেম্বর, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



লক্ষ্মীপুর বেসরকারি নিউ আধুনিক হাসপাতালে অবেদন চিকিৎসক ছাড়াই অস্ত্রোপচার করায় প্রসূতি শিমু আক্তারের মৃত্যু হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। নিহতের স্বজনদের অভিযোগ, সিভিল সার্জন আব্দুল গফ্ফারের অবহেলায় এ মৃত্যু হয়েছে।

ঘটনার পর গত শনিবার রাতে নিহতের বিক্ষুব্ধ স্বজনরা হাসপাতালের দরজা-জানালা ভাঙচুর করে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

বিজ্ঞাপন

নিহত শিমু সদর উপজেলার শাকচর গ্রামের সরকারি কর্মচারী মো. লাভলুর স্ত্রী। তবে নবজাতক সুস্থ রয়েছে।

শিমুর স্বজনরা জানায়, প্রথমে তাঁকে মা ও শিশু কল্যাণ কেন্দ্রে নিয়ে যাওয়া হয়। পরে আলট্রাসনোতে শিশুর অবস্থান উল্টো শনাক্ত হওয়ায় তাঁকে বেসরকারি হাসপাতালটিতে ভর্তি করা হয়। সেখানে বিকেলে সিভিল সার্জন ডা. আব্দুল গফ্ফার প্রসূতিকে অস্ত্রোপচার করেন। কিছুক্ষণ পর নবজাতককে স্বজনদের কোলে তুলে দেওয়া হয়। এরপর অন্য এক প্রসূতিরও অস্ত্রোপচার করেন ওই চিকিৎসক। কিন্তু শিমুর শারীরিক অবস্থা সম্পর্কে হাসপাতাল থেকে কিছুই জানানো হয়নি। এ সময় তাদের সন্দেহ হলে শিমু স্ট্রোক করেছেন জানিয়ে চিকিৎসক ও হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ তাঁকে বিকেল ৫টার দিকে কুমিল্লা হাসপাতালে স্থানান্তর করার পরামর্শ দেয়। পরে তাঁর মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত হয় পরিবার।

লক্ষ্মীপুর সিভিল সার্জন আব্দুল গফ্ফার অভিযোগ অস্বীকার করে কালের কণ্ঠকে বলেন, অবেদন চিকিৎসক ছিলেন অপারেশন থিয়েটারে।



সাতদিনের সেরা