kalerkantho

শুক্রবার । ৭ মাঘ ১৪২৮। ২১ জানুয়ারি ২০২২। ১৭ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

উৎসবের জন্য প্রস্তুত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি   

১ ডিসেম্বর, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



উৎসবের জন্য প্রস্তুত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়

জ্ঞানের আলো ছড়াতে থাকা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় (ঢাবি) চলতি বছরের ১ জুলাই শতবর্ষে পা রাখে। তবে মহামারির কারণে সেই সুবর্ণ ক্ষণটি উদযাপন করা সম্ভব হয়নি। পরিস্থিতির বেশ খানিকটা উন্নতি হওয়ায় অবশেষে প্রাচ্যের অক্সফোর্ডখ্যাত এই ক্যাম্পাসে শতবর্ষ উৎসব উদযাপন শুরু হচ্ছে আজ। বর্ণিল সাজে সাজানো হয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস।

বিজ্ঞাপন

ঢাবির শতবর্ষপূর্তি ও মহান স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী উৎসবের জাঁকজমকপূর্ণ উদ্বোধনী অনুষ্ঠান হবে বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় খেলার মাঠে। উদ্বোধনী দিনে দুই ধাপে অনুষ্ঠান হবে। প্রথম ধাপে আচার্য ও রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ প্রধান অতিথি হিসেবে ভার্চুয়ালি উপস্থিত থেকে উৎসবের উদ্বোধন করবেন। এ ছাড়া ভুটানের প্রধানমন্ত্রী ও ঢাবি অ্যালামনাই লোটে শেরিং উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে ভার্চুয়ালি শুভেচ্ছা বক্তব্য দেবেন। জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী অনুষ্ঠানে সম্মানিত অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেবেন। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করবেন উপাচার্য অধ্যাপক মো. আখতারুজ্জামান।

শতবর্ষ ও স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী উপলক্ষে বর্ণিল সাজে সাজানো হয়েছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস। আলোকসজ্জা করা হয়েছে উপাচার্য ভবন, কার্জন হল, কলা ভবন, টিএসসিসহ বিশ্ববিদ্যালয়ের গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনায়। বিশ্ববিদ্যালয়ের ভেতরের রাস্তার ল্যাম্পপোস্টগুলোতে শোভা পাচ্ছে ‘শতবর্ষের আলোয় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়’ লেখা রঙিন সব ফেস্টুন। মূল অনুষ্ঠান কেন্দ্রীয় খেলার মাঠে হলেও কলা ভবন, টিএসসিতে রাখা হয়েছে বড় পর্দায় সরাসরি অনুষ্ঠান দেখার সুযোগ।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের শুরুতে শতবর্ষের তথ্যচিত্র প্রদর্শন এবং ‘থিম সং’ পরিবেশন করা হবে। এ ছাড়া রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ঢাবির শতবর্ষপূর্তি এবং মহান স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী উপলক্ষে প্রকাশিত গ্রন্থসমূহ ও ওয়েবসাইট উদ্বোধন করবেন। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেবেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি, পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন, বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. কাজী শহীদুল্লাহ এবং ঢাবি অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি এ কে আজাদ। বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য (প্রশাসন) অধ্যাপক মুহাম্মদ সামাদ ধন্যবাদ জ্ঞাপন করবেন, উপ-উপাচার্য (শিক্ষা) ও শতবর্ষ উদযাপন কেন্দ্রীয় সমন্বয় কমিটির সদস্যসচিব অধ্যাপক এ এস এম মাকসুদ কামাল স্বাগত বক্তব্য দেবেন। কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক মমতাজ উদ্দিন আহমেদ রাষ্ট্রপতিকে বিশেষ স্যুভেনির প্রদান করবেন।

দ্বিতীয় পর্বে ইমেরিটাস অধ্যাপক সিরাজুল ইসলাম চৌধুরীর সভাপতিত্বে বিকেলের আলোচনায় অংশ নেবেন আইনমন্ত্রী আনিসুল হক, পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী মো. শাহিরয়ার আলম, ডাকসুর সাবেক সহসভাপতি মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম, দ্য ডেইলি অবজারভারের সম্পাদক ও প্রধানমন্ত্রীর সাবেক তথ্য উপদেষ্টা ইকবাল সোবহান চৌধুরী ও উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক সৈয়দ হুমায়ুন আখতার। আলোচনাসভায় কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক সোনালি চক্রবর্তী বন্দ্যোপাধ্যায় সম্মানিত অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেবেন। সন্ধ্যায় থাকছে সাংস্কৃতিক পরিবেশনা। এ ছাড়া আগামী ২, ৩, ৪ ও ১২ ডিসেম্বর কেন্দ্রীয় খেলার মাঠে রয়েছে নিয়মিত আয়োজন। বিকেলে হবে আলোচনাসভা আর সন্ধ্যায় খ্যাতিমান শিল্পীদের অংশগ্রহণে সাংস্কৃতিক পরিবেশনা। প্রথিতযশা শিল্পী, সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব ছাড়াও বিশ্ববিদ্যালয়ের সংগীত বিভাগের শিল্পীরা সাংস্কৃতিক পরিবেশনায় অংশ নেবেন।



সাতদিনের সেরা