kalerkantho

সোমবার ।  ২৩ মে ২০২২ । ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ । ২১ শাওয়াল ১৪৪৩  

কণ্ঠশীলনের শততম আবর্তন উদযাপন ও সমাবর্তন ২০২১

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২৭ নভেম্বর, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



কণ্ঠশীলনের শততম আবর্তন উদযাপন ও সমাবর্তন ২০২১

কবি মুহম্মদ নূরুল হুদা

প্রমিত উচ্চারণ, বানান ও আবৃত্তি শিক্ষার প্রতিষ্ঠান কণ্ঠশীলনের ‘শততম আবর্তন উদযাপন ও সমাবর্তন ২০২১’ অনুষ্ঠিত হয়েছে গতকাল শুক্রবার। বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির জাতীয় চিত্রশালা মিলনায়তনে সন্ধ্যায় এ অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়।

অনুষ্ঠানে বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক কবি মুহম্মদ নূরুল হুদা প্রদায়ক গুণিন হিসেবে উপস্থিত থেকে বলেন, ‘বাংলাদেশে কণ্ঠশীলন একমাত্র প্রতিষ্ঠান, যারা প্রমিত উচ্চারণ, বানান ও আবৃত্তি শিক্ষার শততম আবর্তন সম্পন্ন করেছে। কণ্ঠশীলনের এই পথচলা সবার জন্য অনুসরণীয়।

বিজ্ঞাপন

’ তিনি দীর্ঘ ৩৭ বছর ধরে কণ্ঠশীলনের কার্যক্রমকে যাঁরা এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন, তাঁদের অভিনন্দন জানান।

অনুষ্ঠানে সম্মাননা জানানো হয় কণ্ঠশীলনের প্রথম আবর্তন থেকে শততম আবর্তন পর্যন্ত নিরলসভাবে কাজ করে যাওয়া বর্তমান অধ্যক্ষ মীর বরকতকে। তিনি বলেন, ‘প্রাতিষ্ঠানিক আবৃত্তিচর্চার শুরুতেই শিক্ষাগুরু ওয়াহিদুল হক, বাক্-শিল্পাচার্য নরেন বিশ্বাসের সঙ্গে কণ্ঠশীলনের প্রতিষ্ঠা থেকে যুক্ত ছিলাম, এটা আমার সৌভাগ্য। বাংলাদেশে প্রমিত উচ্চারণ ও আবৃত্তি শিক্ষার ১০০ কোর্স সম্পন্ন করেছে কণ্ঠশীলন, যা একটি ইতিহাস। তিল তিল করে কণ্ঠশীলন এই সাফল্য অর্জন করেছে অনেক মানুষের নিরলস শ্রমের বিনিময়ে। কণ্ঠশীলন থেকে প্রশিক্ষণ নিয়ে বহু শিক্ষার্থী দেশ-বিদেশের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পালন করছেন। সংবাদ পাঠক, রিপোর্টার, অভিনেতা-অভিনেত্রীসহ দেশের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে সুনামের সঙ্গে কাজ করছেন কণ্ঠশীলনের শিক্ষার্থীরা। ’  অনুষ্ঠানে ভার্চুয়ালি যুক্ত থেকে বক্তব্য দেন কণ্ঠশীলনের সাবেক শিক্ষার্থী, তুরস্কে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মসয়ূদ মান্নান এবং ভারতের কলকাতায় নিযুক্ত ডেপুটি হাইকমিশনার তৌফিক হাসান। মসয়ূদ মান্নান বলেন, ‘কণ্ঠশীলনে একবার যাঁরা যুক্ত হন, তাঁরা কখনো বিযুক্ত হন না। তাই তো বহু বছর কণ্ঠশীলন থেকে দূরে থাকলেও আজ কণ্ঠশীলনের এই মাইলফলক অনুষ্ঠানে যুক্ত হতে পেরেছি। ’



সাতদিনের সেরা