kalerkantho

বুধবার । ১২ মাঘ ১৪২৮। ২৬ জানুয়ারি ২০২২। ২২ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী

সংসদে প্রধানমন্ত্রী উত্থাপিত সাধারণ প্রস্তাব গৃহীত

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২৬ নভেম্বর, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী উপলক্ষে জাতীয় সংসদে উত্থাপিত সংসদ নেতা ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাধারণ প্রস্তাব সর্বসম্মতভাবে গৃহীত হয়েছে। প্রস্তাবটি গতকাল বৃহস্পতিবার রাতে স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী ভোটে দিলে উপস্থিত সবাই হাঁ ভোট দেন। এর আগে প্রস্তাবটির ওপর সরকারি ও বিরোধীদলীয় ৫৯ জন সদস্য আলোচনা করেন।

গত বুধবার রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ সুবর্ণ জয়ন্তী উপলক্ষে সংসদে স্মারক বক্তৃতা দেন।

বিজ্ঞাপন

এরপর ওই বক্তব্যকে সমর্থন জানিয়ে সংসদে সাধারণ প্রস্তাব আনেন প্রধানমন্ত্রী ও সংসদ নেতা শেখ হাসিনা। পরে সাধারণ প্রস্তাবের ওপর আলোচনায় অংশ নিয়ে মন্ত্রী-সংসদ সদস্যরা বলেন, স্বাধীনতাবিরোধী, বঙ্গবন্ধুর খুনিদের দোসর এবং পাকিস্তানের দালালদের দেশবিরোধী চক্রান্ত-ষড়যন্ত্র রুখে দিতে অসাম্প্রদায়িক-গণতান্ত্রিক-প্রগতিশীল শক্তির ঐক্যের বিকল্প নেই।

গতকাল অধিবেশনের শেষ দিনে বক্তব্য দেন সংসদে বিরোধী দলের উপনেতা গোলাম মোহাম্মদ কাদের, আওয়ামী লীগের প্রবীণ নেতা আমির হোসেন আমু, সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য বেগম মতিয়া চৌধুরী, কৃষিমন্ত্রী আবদুর রাজ্জাক, আইনমন্ত্রী আনিসুল হক, তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহ্‌মুদ, শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি, বস্ত্র ও পাট মন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী, পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহিরয়ার আলম, বিমান প্রতিমন্ত্রী মাহবুব আলী, সাবেক মন্ত্রী শাজাহান খান প্রমুখ।

আলোচনায় অংশ নিয়ে আমির হোসেন আমু বলেন, স্বাধীন দেশকে ব্যর্থ ও পাকিস্তানের ভাবধারায় ফিরিয়ে নিতে বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করা হয়।

সাবেক কৃষিমন্ত্রী মতিয়া চৌধুরী বলেন, বিএনপির এ দেশের কিছুই ভালো লাগে না। তারা শুধু বাংলাদেশকে চুষে ও চিবিয়ে খেতে তৃপ্তি পায়।



সাতদিনের সেরা