kalerkantho

শুক্রবার ।  ২০ মে ২০২২ । ৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ । ১৮ শাওয়াল ১৪৪৩  

সংক্ষিপ্ত

প্যানেলের মাধ্যমে শিক্ষক নিয়োগের দাবি

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২৪ নভেম্বর, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে প্যানেলের মাধ্যমে শিক্ষক নিয়োগের দাবি জানিয়েছেন চাকরিপ্রত্যাশীরা। গতকাল মঙ্গলবার জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে ‘প্রাথমিক সহকারী শিক্ষক প্যানেল প্রত্যাশী-২০১৮’ ব্যানারে এক মানববন্ধনে এই দাবি জানানো হয়। মানববন্ধন থেকে বলা হয়, ২০১৮ সালে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক নিয়োগের পরীক্ষার্থী ছিলেন ২৪ লাখ। লিখিত পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হন ৫৫ হাজার ২৯৫ জন।

বিজ্ঞাপন

তাঁদের মধ্যে ১৮ হাজার ১৪৭ জনকে চূড়ান্তভাবে সুপারিশ করা হয়। তাঁদের মধ্যে তিন হাজার ৫০০ জনেরও বেশি কর্মস্থলে যোগদান করেননি। অথচ প্রাথমিকে সহকারী শিক্ষক পদে ২৮ হাজার ৭৩২টি শূন্যপদ আছে। সংগঠনের কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি মো. আব্দুল কাদের বলেন, ‘আমরা প্রাথমিক সহকারী শিক্ষক নিয়োগ-২০১৮ সালের লিখিত ও মৌখিক পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়েও চূড়ান্ত নিয়োগ থেকে বঞ্চিত হয়েছি। করোনাভাইরাসের কারণে এত দিন নিয়োগ বন্ধ থাকায় প্রাথমিক বিদ্যালয়গুলোতে শিক্ষক ঘাটতি রয়েছে, আমরাও চাকরি থেকে বঞ্চিত রয়েছি। আমরা চাই, ২০১৮ সালে উত্তীর্ণদের প্যানেলের মাধ্যমে নিয়োগ দিয়ে সেই ঘাটতি পূরণ করা হোক। ’ সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক মো. আবু হাসান বলেন, ‘আমরা প্যানেলে নিয়োগ পেতে বিভিন্ন জায়গায় গিয়েছি। মন্ত্রণালয়ে গিয়ে আশানুরূপ কোনো ফল পাইনি। প্রধানমন্ত্রী আমাদের শেষ ভরসার জায়গা। ’

জানা যায়, ২০১৮ সালের নিয়োগ পরীক্ষায় উত্তীর্ণরা প্যানেলের মাধ্যমে নিয়োগের দাবি করে আসছিলেন। কিন্তু প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর এরই মধ্যে নতুন বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে। এতে ফের আন্দোলন শুরু করেছেন প্যানেলপ্রত্যাশীরা।



সাতদিনের সেরা