kalerkantho

মঙ্গলবার । ১১ মাঘ ১৪২৮। ২৫ জানুয়ারি ২০২২। ২১ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

বিএসএফ নিয়ে মন্তব্য

মামলার হুঁশিয়ারি দিয়ে অপর্ণাকে চিঠি দিলেন বিজেপি নেতা

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১৯ নভেম্বর, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



পশ্চিমবঙ্গসহ ভারতের রাজ্যে রাজ্যে বিএসএফের এখতিয়ার বাড়ানো নিয়ে অভিনেত্রী অপর্ণা সেনের বক্তব্যের বিষয়ে তাঁর বিরুদ্ধে মামলার হুঁশিয়ারি দিয়েছে বিজেপি। গত সোমবার কলকাতায় বাম দলগুলোর এক সংবাদ সম্মেলনে বিশিষ্ট এই অভিনেত্রী বিএসএসএফের এখতিয়ারের পাশাপাশি কাজ নিয়েও কিছু সমালোচনামূলক বক্তব্য দেন।

বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতা অনির্বাণ গঙ্গোপাধ্যায়ের আইনজীবী গতকাল বৃহস্পতিবার চিঠি দিয়ে জানিয়েছেন, বিএসএফ সম্পর্কে করা মন্তব্যের জন্য ক্ষমা না চাইলে অপর্ণার বিরুদ্ধে আদালতে মামলা করা হবে।

দুই দিন ধরে রাজ্য বিধানসভায় উত্তপ্ত আলোচনা এবং বুধবার কেন্দ্রের সিদ্ধান্তের বিরোধিতা করে রাজ্য সরকার প্রস্তাব পাসের প্রেক্ষাপটে অপর্ণা এ চিঠি পেলেন।

বিজ্ঞাপন

১১২-৬৩ ভোটে পাস হয় প্রস্তাবটি। চিঠির প্রেরক অনির্বাণ গঙ্গোপাধ্যায় বিজেপির কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য।

সম্প্রতি বিজ্ঞপ্তি দিয়ে ভারতের কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানায়, পশ্চিমবঙ্গ, আসাম ও পাঞ্জাবে আন্তর্জাতিক সীমান্ত থেকে ৫০ কিলোমিটার ভেতর পর্যন্ত তল্লাশি, বাজেয়াপ্ত ও গ্রেপ্তার করার ক্ষমতা দেওয়া হয়েছে সীমান্তরক্ষী বাহিনীকে (বিএসএফ)। এই সিদ্ধান্তের প্রতিবাদ জানিয়ে প্রধানমন্ত্রীকে চিঠি দেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ও পাঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী চরণজিৎ সিংহ চন্নী।

এ বিষয়ে গত সোমবার কলকাতা প্রেস ক্লাবে কয়েকটি বাম সংগঠনের একটি সংবাদ সম্মেলনে হাজির হয়েছিলেন চলচ্চিত্র নির্মাতা ও অভিনেত্রী অপর্ণা সেন। অভিযোগ উঠেছে, সেখানে তিনি বিএসএফের এখতিয়ার বৃদ্ধি নিয়ে প্রশ্ন তোলেন। বিজেপি নেতা অনির্বাণের অভিযোগ, অপর্ণা বিএসএফকে খুনি ও ধর্ষক বলে অপমান করেছেন। অনির্বাণের আইনজীবী পৃথ্বীজয় দাশের নামে পাঠানো ওই চিঠিতে বলা হয়েছে, বিএসএফ নিয়ে মন্তব্যের জন্য আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে অপর্ণা সেন নিঃশর্ত ক্ষমা না চাইলে তাঁর বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

বিএসএফের এখতিয়ার বাড়ানোর প্রশ্নে রাজ্যের গুরুত্বপূর্ণ নেতা ও বিধায়ক তাপস রায় বিধানসভায় পরিসংখ্যান দিয়ে বিএসএফের বিরুদ্ধে সীমান্ত হত্যা, গুম, অপহরণের অভিযোগ তোলেন। অন্যদিকে রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী পশ্চিমবঙ্গ সরকারের অবস্থান নিয়ে কটাক্ষ করেন। সূত্র : আনন্দবাজার পত্রিকা ও ডয়চে ভেলে।



সাতদিনের সেরা