kalerkantho

শনিবার । ২৫ জুন ২০২২ । ১১ আষাঢ় ১৪২৯ । ২৪ জিলকদ ১৪৪৩

দাওয়াই

ভ্রান্তি এড়িয়ে সঠিক খাদ্যাভ্যাস গড়ে তুলুন

নিজেকে কর্মক্ষম ও রোগমুক্ত রাখতে আজকাল খাদ্যাভ্যাসের ব্যাপারে কম-বেশি সবাই সচেতন। এর পরও আমরা দৈনন্দিন খাদ্যাভ্যাস নিয়ে অজান্তেই কিছু ভুল করে ফেলি, যা স্বাস্থ্যের জন্য বেশ ক্ষতিকর হতে পারে। অথচ একটু সচেতন হলে ভ্রান্তি এড়িয়ে সঠিক খাদ্যাভ্যাস গড়ে তোলা যায়।

১৯ নভেম্বর, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ভ্রান্তি এড়িয়ে সঠিক খাদ্যাভ্যাস গড়ে তুলুন

প্যাকেটজাত দুধ, ঘি, মাখন, দই নয়

বাজারে প্যাকেটজাত, টিনজাত দুধ, দই, ঘি, মাখন ইত্যাদির প্রচুর সমারোহ। পারতপক্ষে এসব খাবেন না, এড়িয়ে চলুন। কেননা এসব প্যাকেটজাত, টিনজাত খাবারে ফ্যাট বাদ দিয়ে স্বাদ বাড়াতে বাড়তি চিনি মেশানো হয়, যা দেহের জন্য আদৌ প্রয়োজন নেই। এ ছাড়া এসবে থাকে স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর সিনথেটিক বা প্লাস্টিকের উপাদান।

বিজ্ঞাপন

সম্ভব হলে বাড়ির আশপাশ থেকে গরু বা মহিষের খাঁটি দুধের জোগান নিন এবং সেই দুধ থেকে বাসায় ঘি, মাখন, দই ইত্যাদি তৈরি করুন। এতে খরচও কমবে, পাশাপাশি ক্ষতিকর খাদ্যাভ্যাস থেকেও দুরে থাকা যাবে।

 

ভালো করে ধুয়ে নিন

অর্গানিক বা জৈব শাকসবজি, ফলমূলের চাহিদা বেশ বাড়ছে। এসব স্বাস্থ্যের জন্য ভালো হলেও অর্গানিক কি না তা নিশ্চিত করার উপায় নেই। তাই বাজার থেকে আনা সব শাকসবজি, ফলমূল পানি দিয়ে ভালো করে ধুয়ে নিন, এরপর রান্না করুন বা কেটে খান।

 

এনার্জি ড্রিংকস বাদ দিন

অনেকে হরহামেশা এনার্জি ড্রিংকস পান করে। বিশেষ করে তরুণরা। অনেকে আবার ব্যায়াম করার পর এসব পান করেন। এনার্জি ড্রিংকস মোটেও পান করবেন না। এসব পানীয়ে প্রচুর চিনি ও ক্যাফেইন থাকে। এনার্জি ড্রিংকস রক্তচাপ এবং হৃদপিণ্ডের ওপর অস্বাভাবিক প্রভাব ফেলে। তার চেয়ে বরং একটি বা দুটো খেজুর বা কলা খান, দেখবেন এনার্জি বেড়ে গেছে।

 

কাঁচা বা ভাজা লবণ একই বিষয়

অনেকে বিশেষ করে উচ্চ রক্তচাপ ও হৃদরোগীরা সোডিয়াম নিয়ন্ত্রণের জন্য কাঁচা লবণ না খেয়ে লবণকে কিছুটা ভেজে খান। তাঁদের ধারণা, টেলে বা ভেজে খেলে সেই লবণ স্বাস্থ্যের কোনো ক্ষতি করবে না। কিন্তু আসল তথ্য হলো, তাতেও সোডিয়ামের মাত্রা একই থাকে। তাই রান্নায় বা তরকারিতে যে লবণ দেওয়া হয়, এর বাইরে টেলে বা ভেজে কোনোভাবেই আলাদা লবণ খাবেন না।



সাতদিনের সেরা