kalerkantho

শনিবার ।  ২১ মে ২০২২ । ৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ । ১৯ শাওয়াল ১৪৪৩  

পঞ্চগড়ে শীতের প্রকোপ

টানা ১৩ দিন সর্বনিম্ন তাপমাত্রা

পঞ্চগড় প্রতিনিধি   

১৯ নভেম্বর, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ক্যালেন্ডারের পাতা বলছে হেমন্ত এখনো শেষ হয়নি। কিন্তু টানা ১৩ দিন ধরে দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা বিরাজ করছে পঞ্চগড়ের তেঁতুলিয়ায়। গতকাল বৃহস্পতিবার এ মৌসুমে দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ১৩.২ ডিগ্রি সেলসিয়াস রেকর্ড করা হয়। তাই এখন সেখানে তাপমাত্রা কমার সঙ্গে সঙ্গে শুরু হয়েছে শীতের প্রকোপ।

বিজ্ঞাপন

তবে তাপমাত্রা কমতে শুরু করলেও দিনের সময়টাতে বিশেষ করে সকাল থেকে বিকেল পর্যন্ত তাপমাত্রা বেড়ে ৩০ থেকে ৩২ ডিগ্রি সেলসিয়াসের মধ্যে ওঠানামা করছে। সন্ধ্যার পরপরই তাপমাত্রা ১৩ থেকে ১৪ ডিগ্রি সেলসিয়াসের মধ্যে ওঠানামা করছে।

হিমালয়কন্যা খ্যাত পঞ্চগড়ে বরাবরই শীতের প্রকোপ একটু বেশিই থাকে। শীতকালের বেশির ভাগ সময়জুড়ে দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা বিরাজ করে প্রান্তিক এ জেলায়। গত ৬ নভেম্বর থেকে টানা ১৩ দিন ধরে দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হচ্ছে পঞ্চগড়ের তেঁতুলিয়ায়।

স্থানীয়রা জানান, নভেম্বরের শুরু থেকেই একটু একটু করে বাড়ছে শীতের তীব্রতা। সকাল থেকে বিকেল পর্যন্ত থাকছে কড়া রোদ। আবার বিকেল গড়াতেই তাপমাত্রার পারদ পাল্লা দিয়ে নামতে থাকে। সন্ধ্যা থেকে সকাল পর্যন্ত হালকা কুয়াশায় ঢাকা পড়ছে চারপাশ। শীত ঋতুর এই সময়টিকেই উপভোগের বলে মনে করেন স্থানীয়রা।

পঞ্চগড় কলেজছাত্র জুনায়েদ বাপ্পী বলেন, ‘শীতের এই সময়টি আমরা বেশ উপভোগ করি। দিনে প্রচণ্ড গরম আর সন্ধ্যা থেকে শুরু করে সকাল পর্যন্ত শীত অনুভূত হচ্ছে। সকালের মিষ্টি রোদে বসে রোদ পোহানো আর চায়ের কাপে জমে আড্ডা। এই শীতে আমাদের এই এলাকার মানুষ চলাফেরা করতে অভ্যস্ত। তবে শীতের তীব্রতা বাড়লে নিম্ন আয়ের মানুষে েকষ্ট বেড়ে যায়। ’

তেঁতুলিয়া আবহাওয়া পর্যবেক্ষণাগারের আবহাওয়া পর্যবেক্ষক রোকনুজ্জামান বলেন, বৃহস্পতিবার এই মৌসুমে দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা পঞ্চগড়ে নেমে এসেছে। সামনে তাপমাত্রা আরো কমে আসার পাশাপাশি শীতের প্রকোপ বাড়বে।

পঞ্চগড় জেলা প্রশাসক মো. জহুরুল ইসলাম বলেন, ‘এখন যে শীত চলছে তাতে এ এলাকার মানুষ অভ্যস্ত। আমরা এই শীতকে ঘিরে পঞ্চগড়ে পর্যটনের সম্ভাবনা দেখছি। সেই সঙ্গে শীতের তীব্রতা মোকাবেলায় আমাদের প্রস্তুতি রয়েছে। এরই মধ্যে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে আমরা ২১ হাজার শীতবস্ত্র পেয়েছি। এ ছাড়া দুর্যোগ ও ত্রাণ মন্ত্রণালয় থেকে পাঁচ লাখ টাকা বরাদ্দ পেয়েছি। সেই টাকা দিয়েও শীতবস্ত্র কিনে অসহায় দরিদ্রদের মধ্যে বিতরণ করা হবে। ’



সাতদিনের সেরা