kalerkantho

শনিবার ।  ২১ মে ২০২২ । ৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ । ১৯ শাওয়াল ১৪৪৩  

শেরপুরে হাতি হত্যায় মামলা

মেঘালয়ে ফিরে গেছে তিন হাতি

শেরপুর, সুনামগঞ্জ ও শ্রীবরদী প্রতিনিধি   

১৯ নভেম্বর, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



শেরপুরের শ্রীবরদী উপজেলায় বন্য হাতি হত্যার ঘটনায় চারজনকে আসামি করে বন আইনে মামলা করেছে বন বিভাগ। জেলা বন বিভাগের বালিজুড়ি রেঞ্জের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা রবিউল ইসলাম উপজেলার আমলি আদালতে এই মামলা করেন। বন বিভাগ জানিয়েছে, হাতি হত্যার ঘটনায় জেলায় এটি প্রথম মামলা। গতকাল বৃহস্পতিবার ওই কর্মকর্তা মামলার বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

বিজ্ঞাপন

রেঞ্জ কর্মকর্তা রবিউল ইসলাম জানান, মামলার আসামিরা হলেন উপজেলার মালাকোচা এলাকার দুই ভাই আমেজ উদ্দিন ও সমেজ উদ্দিন এবং মো. আশরাফুল ও মো. শাহজালাল। গত ১১ নভেম্বর মামলাটি করা হয়। আসামিদের বিরুদ্ধে সমন জারি করে আগামী ১২ ডিসেম্বর শুনানির দিন ধার্য করেছেন আদালত।

বন বিভাগ সূত্র জানায়, মালাকোচা এলাকার সোনাঝুড়ি টিলায় বন বিভাগের জমিতে স্থানীয় অনেকে অবৈধভাবে সবজির চাষ করে। সবজির জমি ধাতব তার দিয়ে ঘিরে জেনারেটরে সংযোগ দেওয়া হয়। এতে গত ৯ নভেম্বর রাতে বন্য হাতির দল নেমে এলে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে হাতি মারা যায়।

এদিকে ভারতের খাসিয়া পাহাড় থেকে নেমে আসা তিনটি বন্য হাতি সুনামগঞ্জের তাহিরপুরের বড় গোপটিলা সীমান্ত এলাকায় দুই রাত অবস্থান করে গতকাল বৃহস্পতিবার আবারও ভারতের অংশে ফিরে গেছে। আগের দুই দিন হাতি তিনটি আমন ক্ষেত ও গাছপালার ব্যাপক ক্ষতি করেছে। হাতির ওপর আক্রমণ না করতে পুলিশ মাইকিং করে আসছিল।

এলাকাবাসী জানায়, গত মঙ্গলবার গভীর রাতে ভারতের মেঘালয় রাজ্যের খাসিয়া পাহাড় থেকে হাতি বাংলাদেশে নেমে আসে। কড়ইগড়া, মাহরাম, বড় গোপটিলাসহ কয়েকটি গ্রামে ক্ষতি করেছে হাতিগুলো।

পরিবেশ আন্দোলনের নেতা এন্ড্রু সলোমার বলেন, ‘ভারতের পাহাড় থেকে এখন প্রায়ই বুনো হাতি নেমে আসে। ভারত সরকার অবকাঠামোর উন্নয়নে হাত দেওয়ায় হাতির আবাসস্থল জঙ্গল খালি হয়ে যাচ্ছে। ’



সাতদিনের সেরা