kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ১৩ মাঘ ১৪২৮। ২৭ জানুয়ারি ২০২২। ২৩ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

ধর্ষণের অভিযোগ নিয়ে পর্যবেক্ষণ

সেই বিচারকের বিচারিক ক্ষমতা প্রত্যাহারে আইনমন্ত্রীর চিঠি

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৪ নভেম্বর, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ধর্ষণের ৭২ ঘণ্টা পর অভিযোগ না নিতে পুলিশকে পরামর্শ দেওয়া বিচারকের বিচারিক ক্ষমতা প্রত্যাহার করতে আজ রবিবার প্রধান বিচারপতির কাছে চিঠি লিখবেন আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রী আনিসুল হক। গতকাল শুক্রবার ঢাকায় সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতি প্রাঙ্গণে আয়োজিত এক অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা জানান। আইনমন্ত্রী আনিসুল হক বলেন, ‘রেইনট্রি মামলার বিচারকের পাওয়ার সিজ করতে প্রধান বিচারপতিকে চিঠি দেব। ’

মামলাটির রায়ে ৭২ ঘণ্টা পর মামলা না নিতে বিচারিক আদালতের রায়ে একটি সুপারিশ রাখা হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

এ বিষয়ে মতামত জানতে চাওয়া হলে গতকাল আইনমন্ত্রী বলেন, ‘একটি কথা পরিষ্কারভাবে বলতে চাই, আমি ওনার রায়ের বিষয়বস্তু নিয়ে মন্তব্য করতে চাই না। আমি শুধু বলব, ওনার এই যে অবজারভেশন (৭২ ঘণ্টা পর পুলিশ যেন কোনো ধর্ষণ মামলার এজাহার না নেয়), এই যে বক্তব্য দিয়েছেন, এটা সম্পূর্ণ বেআইনি এবং অসাংবিধানিক। এই কারণে আমি আগামীকাল (আজ রবিবার) প্রধান বিচারপতির কাছে ওই বিচারকের (ঢাকার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-৭-এর বিচারক বেগম মোছা. কামরুন্নাহার) বিষয়ে যেন ব্যবস্থা নেওয়া হয়, সে জন্য একটা চিঠি লিখছি। ’ এর আগে আইনমন্ত্রী সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতি প্রাঙ্গণে বিশিষ্ট আইনজীবী, সদ্যঃপ্রয়াত আবদুল বাসেত মজুমদারের ‘স্মরণসভা ও দোয়া মাহফিল’ অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন। আইনমন্ত্রী বলেন, আবদুল বাসেত মজুমদারের গুণাবলি ধারণ করতে হবে। তিনি ছিলেন গরিবের আইনজীবী। আইন অঙ্গনে তাঁর অবদান চিরস্মরণীয় হয়ে থাকবে। বাংলাদেশ বার কাউন্সিলের নতুন ভবন নির্মাণের ক্ষেত্রে তিনি অসামান্য অবদান রেখে গেছেন।  



সাতদিনের সেরা