kalerkantho

সোমবার । ১৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৮। ২৯ নভেম্বর ২০২১। ২৩ রবিউস সানি ১৪৪৩

বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তিতে নতুন অধ্যায়

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৮ অক্টোবর, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তিতে নতুন অধ্যায়

শিক্ষার্থীদের ভোগান্তি কমাতে দীর্ঘদিন ধরেই বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ে গুচ্ছ বা সমন্বিত ভর্তি পরীক্ষার ব্যাপারে আলোচনা চলছিল। অবশেষে সফলতা এসেছে। বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তিতে নতুন অধ্যায়ের সূচনা হয়েছে।

দেশের বড় পাঁচটি বিশ্ববিদ্যালয় এতে অংশ না নিলেও ২০টি বিশ্ববিদ্যালয় গুচ্ছ ভর্তির আওতায় এসেছে। গতকাল রবিবার থেকে প্রথমবারের মতো একযোগে শুরু হয়েছে জিএসটি (সাধারণ, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি) গুচ্ছভুক্ত ২০টি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের সমন্বিত ভর্তি পরীক্ষা। এর ফলে একটি পরীক্ষার মাধ্যমেই শিক্ষার্থীরা তাঁদের মেধাক্রম ও পছন্দ অনুযায়ী ২০টি বিশ্ববিদ্যালয়ের যেকোনো একটিতে ভর্তি হতে পারবেন। এতে শিক্ষার্থী-অভিভাবকদের দুর্ভোগ অনেকাংশেই কমেছে। গতকাল প্রথম দিন বিজ্ঞান বিভাগের ভর্তি পরীক্ষা হয়, তাতে ২৮টি কেন্দ্রে অংশ নেন এক লাখ ৩১ হাজার ৯০৫ শিক্ষার্থী। এক ঘণ্টার ভর্তি পরীক্ষায় তাঁদের ১০০ নম্বরের এমসিকিউ প্রশ্নের উত্তর দিতে হয়েছে। এ পরীক্ষার ফলাফলের ভিত্তিতে প্রকাশিত হবে মেধাতালিকা। গুচ্ছে থাকা বিশ্ববিদ্যালয়গুলো সেই মেধাতালিকা থেকে নিজেদের শর্ত পূরণ সাপেক্ষে ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষের স্নাতক প্রথম বর্ষে শিক্ষার্থী ভর্তি করবে।

২৪ অক্টোবর মানবিক বিভাগ ও ১ নভেম্বর বাণিজ্য বিভাগের ভর্তি পরীক্ষা হবে। গুচ্ছভুক্ত এসব বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষায় অংশ নিতে তিন লাখ ৬১ হাজার ৪০৬ শিক্ষার্থী প্রাথমিকভাবে আবেদন করেন। এর মধ্যে বিজ্ঞান বিভাগে এক লাখ ৯৪ হাজার ৮৪১ জন, মানবিক বিভাগে এক লাখ সাত হাজার ৯৩৩ ও বাণিজ্য বিভাগে ৫৮ হাজার ৬৩২ শিক্ষার্থী। তবে বিজ্ঞান বিভাগের এক লাখ ৩১ হাজার ৯০৫ জন এবং মানবিক ও বাণিজ্যের সব শিক্ষার্থী চূড়ান্ত আবেদনের সুযোগ পেয়েছেন। গুচ্ছ পরীক্ষার ফলাফল শেষে বিশ্ববিদ্যালয়গুলো তাদের ওয়েবসাইটে আলাদা আলাদা ভর্তি বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করবে।



সাতদিনের সেরা