kalerkantho

রবিবার । ১৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৮। ২৮ নভেম্বর ২০২১। ২২ রবিউস সানি ১৪৪৩

টেকনাফের ব্যবসায়ীদের দাবি

অনিয়মে বাড়ছে পেঁয়াজের দাম

টেকনাফ (কক্সবাজার) প্রতিনিধি   

১৭ অক্টোবর, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



অনিয়মে বাড়ছে পেঁয়াজের দাম

কক্সবাজারের টেকনাফ স্থলবন্দর দিয়ে মিয়ানমার থেকে পেঁয়াজ আমদানিকারক ব্যবসায়ীরা দাবি করেছেন, অতিরিক্ত খরচের কারণে পেঁয়াজের দাম বেশি পড়ে। তাঁদের অভিযোগ, বন্দরে শ্রমিক সরবরাহকারী ঠিকাদারের অনিয়মের কারণে খালাসের খরচ বাড়ে। অন্যদিকে পরিবহনেও অতিরিক্ত খরচ হচ্ছে। গতকাল শনিবার বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের প্রতিনিধিদলের সঙ্গে বৈঠকে তাঁরা এই অভিযোগ করেন।

টেকনাফ স্থলবন্দর দিয়ে মিয়ানমারের সঙ্গে আমদানি-রপ্তানি বাণিজ্য স্বাভাবিক রাখতে এবং বন্দর কার্যক্রম আরো গতিশীল করার লক্ষ্যে এই বৈঠক হয়। স্থলবন্দরের হলরুমে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) পারভেজ চৌধুরীর সভাপত্বিতে অনুষ্ঠিত বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্তি সচিব এ এইচ এম সফিকুজ্জামান। এর আগে তিনি বন্দরে পেঁয়াজ খালাসসহ সব কাজ ঘুরে দেখেন।

বৈঠক শেষে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব সফিকুজ্জামান সাংবাদিকদের বলেন, বাজারে পেঁয়াজের দাম বাড়ার কারণ হিসেবে অতিরিক্ত ট্রাকভাড়া ও খালাসের ক্ষেত্রে ঠিকাদারের অনিয়মকে দায়ী করেছেন ব্যবসায়ীরা। তিনি আরো জানান, ঢাকায় গিয়ে এসব বিষয়ে এসব ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এ ছাড়া পচনশীল এই পণ্য বন্দর থেকে দ্রুত খালাস হয়ে নির্দিষ্ট গন্তব্যে পৌঁছানোর ক্ষেত্রে ব্যবসায়ীদের হয়রানি বন্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

বৈঠকে বক্তব্যে দেন টেকনাফ-২ বিজিবি ব্যাটালিয়নের উপপরিচালক লেফটেন্যান্ট এম. মুহতাসিম বিল্লাহ, টেকনাফ স্থলবন্দর ইউনাইটেড ল্যান্ড পোর্টের ব্যবস্থাপক মো. জসিম উদ্দীন চৌধুরী, বন্দর কাস্টমস কর্মকর্তা আব্দুন নুর, সিঅ্যান্ডএফ এজেন্ট অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি আব্দুল আমিন, ট্রান্সপোর্ট মালিক সমিতির খলিলুর রহমান ও আমদানিকারক নেতারা।

বৈঠক সূত্রে জানা গেছে, ব্যবসায়ীরা অভিযোগ করেছেন, পাঁচ বছর ধরে একই ঠিকাদার শ্রমিক সরবরাহ করছেন। তিনি বেশি লাভের জন্য রোহিঙ্গাদের ব্যবহার করছেন। পণ্য খালাসের ক্ষেত্রে অতিরিক্ত শ্রমিক ব্যবহার করে বেশি টাকা নিচ্ছেন। এ ছাড়া টেকনাফ থেকে ঢাকা পর্যন্ত এক ট্রাক পেঁয়াজ পরিবহনে খরচ হয় ৪০ হাজার টাকা।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন ব্যবসায়ী কালের কণ্ঠকে বলেন, আমদানি পর্যায়ে সব খরচ ধরে এক কেজি পেঁয়াজের দাম পড়ে ৩০-৩২ টাকা। অথচ খুচরা পর্যায়ে এই পেঁয়াজের দাম হয়ে যায় ৬৫-৭০ টাকা। এর জন্য তিনি বন্দর কর্তৃপক্ষের অনিয়মকেও দায়ী করেন।



সাতদিনের সেরা