kalerkantho

রবিবার । ১৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৮। ২৮ নভেম্বর ২০২১। ২২ রবিউস সানি ১৪৪৩

শিশু দিবসের সেমিনারে বক্তারা

শিশুর জন্য বিনিয়োগ করলে বহুগুণে ফিরে আসে

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১০ অক্টোবর, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বিশ্ব শিশু দিবস ও অধিকার সপ্তাহ উদযাপন উপলক্ষে আয়োজিত সেমিনারে বক্তারা বলেছেন, ‘শিশুর জন্য বিনিয়োগ করলে তা বহুগুণে ফিরে আসে। আক্ষরিক ও বাস্তবিক অর্থে শিশুরা আমাদের ভবিষ্যৎ। তাই সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের দক্ষ জনশক্তিতে পরিণত করতে সবাই মিলে কাজ করতে হবে।’

গতকাল শনিবার ঢাকা আহ্ছানিয়া মিশন আয়োজিত এই ভার্চুয়াল সেমিনারে প্রধান অতিথি ছিলেন মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. সায়েদুল ইসলাম। ঢাকা আহ্ছানিয়া মিশনের প্রেসিডেন্ট কাজী রফিকুল আলমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন ঢাকা আহ্ছানিয়া মিশনের সাধারণ সম্পাদক ড. এস এম খলিলুর রহমান ও অপরাজেয় বাংলাদেশের নির্বাহী পরিচালক ওয়াহিদা বানু। ঢাকা আহ্্ছানিয়া মিশনের নির্বাহী পরিচালক ড. এম এহ্ছানুর রহমানের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে দুজন শিশু প্রতিনিধি তাদের অভিজ্ঞতা শেয়ার করে।

সেমিনারে সচিব মো. সায়েদুল ইসলাম বলেন, শিশুদের রাস্তায় চলে আসার মূল কারণ দারিদ্র্য। সম্প্রতি সরকার এ সম্পর্কিত একটি সমন্বয় কমিটি গঠন করেছে। প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিবকে এ কমিটির প্রধান করা হয়েছে। এখানে বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের প্রতিনিধি, এনজিও ব্যুরোর ডিজি ও বিভিন্ন বেসরকারি সংস্থার প্রতিনিধি যাঁরা শিশুদের নিয়ে কাজ করছেন, তাঁরা এই কমিটিতে রয়েছেন। কমিটির উপদেষ্টা হিসেবে কাজ করছেন সায়মা ওয়াজেদ। তিনি আরো বলেন, দেশে সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের সুনির্দিষ্ট কোনো সংখ্যা নেই। সে ক্ষেত্রে দেশের বিভাগীয় শহরসহ সারা দেশের পথশিশুর সংখ্যা নির্ণয়ের জন্য বিবিএসকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। তিনি ঢাকা আহ্ছানিয়া মিশন পরিচালিত শিশুনগরী ও অন্যান্য প্রকল্পের মাধ্যমে পথশিশুদের জন্য যে কার্যক্রম পরিচালনা করছে, সেগুলো সরেজমিন পরিদর্শনের আগ্রহ প্রকাশ করেন।

মূল প্রবন্ধ উপস্থাপনের সময় ঢাকা আহ্ছানিয়া মিশনের প্রগ্রাম কো-অর্ডিনেটর শেখ মহব্বত হোসেন বলেন, প্রত্যেক পথশিশু যাদের অভিভাবক নেই, তাদের জন্মনিবন্ধন ও লিগ্যাল আইডেনটিটি নিশ্চিত করতে হবে।



সাতদিনের সেরা