kalerkantho

বৃহস্পতিবার  । ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৮। ৯ ডিসেম্বর ২০২১। ৪ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৩

পরীক্ষায় অংশ নেওয়ার মাধ্যমে জবি ক্যাম্পাসে ফিরেছেন শিক্ষার্থীরা

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি   

৮ অক্টোবর, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



দেড় বছর পর জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবি) ২২টি বিভাগের শিক্ষার্থীরা সশরীরে সেমিস্টার ফাইনাল পরীক্ষায় অংশ নিয়েছেন। এর মধ্য দিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়টি খুলে দেওয়ার পাশাপাশি শুরু হয়েছে স্বাভাবিক শিক্ষা কার্যক্রম। গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল-বিকাল দুই শিফটে এই পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। দীর্ঘদিন পর পরীক্ষা দিতে ক্যাম্পাসে ফিরে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেছেন শিক্ষার্থীরা।

বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রেজারার অধ্যাপক ড. কামালউদ্দীন আহমদ বিভিন্ন বিভাগের পরীক্ষার হল পরিদর্শন করেন। এ সময় তিনি পরীক্ষা চলাকালে করোনার স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে শিক্ষার্থীদের পরামর্শ দেন।

পরীক্ষা দিতে সকালে বিশ্ববিদ্যালয়ের বাসে করে শিক্ষার্থীরা ক্যাম্পাসে উপস্থিত হন। বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যাফেটেরিয়া, শহীদ মিনার, শান্ত চত্বর, কাঁঠালতলা, সায়েন্স ফ্যাকাল্টিতেও শিক্ষার্থীদের উপস্থিতি দেখা যায়। এ ছাড়া বিশ্ববিদ্যালয় খোলায় শাখা ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা আনন্দ মিছিল করেন। পরে শহীদ মিনারের সামনে শিক্ষার্থীদের মাঝে মাস্ক ও শিক্ষা উপকরণ বিতরণ করেন। মার্কেটিং বিভাগের শিক্ষার্থী সোহেল রানা কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘করোনার কারণে দীর্ঘদিন পর ক্যাম্পাসে এসে তৃতীয় বর্ষের প্রথম সেমিস্টারের পরীক্ষা দিলাম। অসাধারণ লাগল। এত দিন পর সহপাঠীদের সঙ্গে দেখা হলো, একসঙ্গে পরীক্ষা দিলাম।’ গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের শিক্ষার্থী সুফিয়া খাতুন বলেন, ‘করোনা মহামারি আমাদের জীবনের গুরুত্বপূর্ণ সময় নষ্ট করে দিয়েছে। তবু স্বাস্থ্যবিধি মেনে দেড় বছর পর পরীক্ষা দিলাম। সহপাঠীদের সঙ্গে অনেক দিন পর দেখা হলো। সব কিছু মিলিয়ে অনেক ভালো লাগছে।’ পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক এ কে এম আক্তারুজ্জামান  বলেন, কঠোর স্বাস্থ্যবিধি মেনে সকাল-বিকাল দুই শিফটে বিশ্ববিদ্যালয়ের ২২টি বিভাগের বিভিন্ন ব্যাচের শিক্ষার্থীদের পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়েছে।



সাতদিনের সেরা