kalerkantho

রবিবার । ১৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৮। ২৮ নভেম্বর ২০২১। ২২ রবিউস সানি ১৪৪৩

কুলিয়ারচরে টেন্ডার ছিনিয়ে নিলেন যুবলীগ নেতারা!

নিজস্ব প্রতিবেদক, হাওরাঞ্চল   

২৮ সেপ্টেম্বর, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



কিশোরগঞ্জের কুলিয়ারচর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার দপ্তরে একটি ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধির কাছ থেকে স্থানীয় যুবলীগের দুই নেতার ‘ক্যাডাররা’ টেন্ডার ছিনিয়ে নিয়েছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। গতকাল সোমবার দুপুরে একটি ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের পক্ষে টেন্ডার জমা দিতে গেলে সেটি ছিনিয়ে নেওয়া হয়।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয়ের সিসিটিভিতে সেই চিত্র ধরা পড়েছে বলে জানা গেছে। ছিনতাইয়ের ঘটনায় গতকালই (সোমবার) ইউএনওর কাছে এ বিষয়ে লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। 

উপজেলা নির্বাহী অফিস সূত্রে জানা যায়, উপজেলার সালুয়া ইউনিয়ন এলাকায় পুরাতন ব্রহ্মপুত্র নদ খনন করে বালি ও মাটির ইজারার জন্য ১৩ সেপ্টেম্বর দরপত্র আহবান করে কুলিয়ারচর উপজেলা নির্বাহী অফিস। এর ইজারামূল্য ধরা হয় ৩৯ লাখ ৬৬ হাজার ৭৮ টাকা। তৃতীয় টেন্ডার জমা দেওয়ার শেষ দিন ছিল গতকাল সোমবার। প্রথম দুই দফায় আশানুরূপ দর না পাওয়ায় তৃতীয়বারের মতো টেন্ডার আহবান করা হয়।

শেষবার তিনটি শিডিউল বিক্রি হয়। এর মধ্যে যুবলীগ নেতাদের মালিকানাধীন রতন এন্টারপ্রাইজের শিডিউলটি যথারীতি জমা পড়ে। গতকাল দুপুরে মহিমা এন্টারপ্রাইজ শিডিউল জমা দিতে গেলে সেটি ছিনতাই হয়। অন্য শিডিউলদাতা চাঁদনি এন্টারপ্রাইজের পক্ষে কেউ শিডিউল জমা দিতে আসেনি।

নির্ধারিত সময়ের আগেই শিডিউল জমা দিতে নির্বাহী কর্মকর্তার দপ্তরে যেতে চাইলে মহিমা এন্টারপ্রাইজের প্রোপ্রাইটার রেনু মিয়াকে বাধা দেন প্রভাবশালীরা। পরে উপজেলা চেয়ারম্যানের পিএস ইকবাল হোসেনের মাধ্যমে বাক্সে দরপত্র জমা দিতে গেলে তাঁর কাছ থেকে দরপত্র ছিনিয়ে নেওয়া হয়। এ ঘটনায় নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন ইকবাল হোসেন।

কুলিয়ারচর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) রুবাইয়াৎ ফেরদৌসী বলেন, ‘দরপত্র ছিনিয়ে নেওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এর ভিত্তিতে তদন্ত করে অপরাধীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

কুলিয়ারচর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. ইয়াসির মিয়া বলেন, ‘মহিমা এন্টারপ্রাইজের রেনু মিয়া দরপত্র জমা দিতে গিয়ে বাধা পেয়ে আমার শরণাপন্ন হন। পরে আমার পিএসকে দিয়ে টেন্ডারের দরপত্র জমা দিতে পাঠাই। তখনই ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটে। তদন্ত সাপেক্ষে ন্যক্কারজনক এ ঘটনার বিচার দাবি করছি।’



সাতদিনের সেরা