kalerkantho

সোমবার । ৯ কার্তিক ১৪২৮। ২৫ অক্টোবর ২০২১। ১৭ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

দুই শিশুসহ চারজনকে ধর্ষণের অভিযোগ

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

২৬ সেপ্টেম্বর, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



কুমিল্লায় চাকরি দেওয়ার কথা বলে এক নারীকে ধর্ষণ এবং ধর্ষণের ছবি ও ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দেওয়ার হুমকির অভিযোগে এক ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব। রাজশাহীর বাঘা ও হবিগঞ্জের বাহুবলে দুই শিশু এবং সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়ায় প্রবাসীর স্ত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে।

কুমিল্লায় অভিযুক্ত কাউছার আহমেদ (৪১) জেলার ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলার দক্ষিণ তেতাভূমি গ্রামের মোল্লাবাড়ীর মৃত আবদুল কাদেরের ছেলে।

বাঘা উপজেলায় চলতি মাসের শুরুর দিকে স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণে অভিযুক্তের নাম মজিদ মোল্যা। মজিদ ধর্ষণের বিষয়টি কাউকে জানালে ভুক্তভোগীকে প্রাণে মেরে ফেলার হুমকিও দেন। তাঁর বাড়ি মানিকগঞ্জে। তিনি ছাত্রীটির আত্মীয় ও ঢাকায় একটি প্রতিষ্ঠানে সার্ভেয়ার হিসেবে কর্মরত।

বাহুবল উপজেলার উত্তর ভবানীপুর আশ্রয়ণ প্রকল্পে গতকাল সকালে এক শিশুকে (৮) ধর্ষণে অভিযুক্ত ছালম উল্লা (৫০) সম্ভুপুর গ্রামের হাজি ময়নুল্লার ছেলে। ঘটনার সময় শিশুটির মা বাড়ির বাইরে কাজে গিয়েছিলেন। খবর পেয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা স্নিগ্ধা তালুকদার ও বাহুবল মডেল থানার ওসি রাকিবুল ইসলাম খান ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

উল্লাপাড়া উপজেলার পঞ্চক্রোশী ইউনিয়নে গত ২৩ সেপ্টেম্বর রাতে প্রবাসীর স্ত্রী মেয়ের গৃহশিক্ষকের কাছে ধর্ষণের শিকার হন বলে অভিযোগ। এ ঘটনায় ভুক্তভোগী গতকাল উল্লাপাড়া মডেল থানায় অভিযুক্ত মো. রুবেল রানার বিরুদ্ধে মামলা করেছেন।

মামলা সূত্রে জানা যায়, রুবেল শিক্ষার্থীকে প্রাইভেট পড়ানোর সুযোগে তার মাকে বিভিন্ন সময়ে অনৈতিক প্রস্তাব দেন ও ধর্ষণের চেষ্টা চালান। এ অবস্থায় বাদী মেয়েকে রুবেলের কাছে পড়ানো বন্ধ করে দেন। ২৩ সেপ্টেম্বর বাড়িতে কেউ না থাকায় রাত ৯টার দিকে রুবেল চুপিসারে বাদীর ঘরে ঢুকে হত্যার ভয় দেখিয়ে তাঁকে ধর্ষণ করেন। এ সময় বাদীর চিৎকারে এলাকাবাসী এগিয়ে এলে রুবেল পালিয়ে যান। 

উল্লাপাড়া মডেল থানার উপপরিদর্শক সাহেব গনি জানান, আসামি রুবেলকে আদালতের মাধ্যমে সিরাজগঞ্জ জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।

[প্রতিবেদনে তথ্য দিয়েছেন কালের কণ্ঠ’র নিজস্ব প্রতিবেদক, রাজশাহী ও কুমিল্লা এবং প্রতিনিধি হবিগঞ্জ ও উল্লাপাড়া (সিরাজগঞ্জ)]



সাতদিনের সেরা