kalerkantho

বৃহস্পতিবার  । ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৮। ৯ ডিসেম্বর ২০২১। ৪ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৩

নার্গিসের পাশে দাঁড়াল কালের কণ্ঠ শুভসংঘ

কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি   

২১ সেপ্টেম্বর, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



নার্গিসের পাশে দাঁড়াল কালের কণ্ঠ শুভসংঘ

বাল্যবিয়েতে ডুব না দেওয়া কুড়িগ্রামের সেই লড়াকু নার্গিস নাহারের লেখাপড়ার খরচ জোগাতে কালের কণ্ঠ’র শুভসংঘের পক্ষ থেকে টাকা ও শিক্ষা উপকরণ দেওয়া হয়েছে। গতকাল সোমবার সদর উপজেলার সারডোব আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ে কুড়িগ্রাম শুভসংঘের পক্ষ থেকে সহায়ক বই, কলম, খাতা, ক্যালকুলেটর, জ্যামিতি বক্সসহ কিছু টাকা তার হাতে তুলে দেওয়া হয়।

এ সময় সারডোব আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ফজলার রহমান, সহকারী শিক্ষক আব্দুল মজিদ চৌধুরী, আবু সুফিয়ান, স্কুলের ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতি একরামুল হক, স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন সারডোবে আলোর সভাপতি এনামুল হক, কালের কণ্ঠ’র কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি আব্দুল খালেক ফারুক, জেলা শুভসংঘের সদস্য শফিকুল ইসলাম, কুড়িগ্রাম সরকারি কলেজ শুভসংঘের প্রচার সম্পাদক সাজেদুল করিম সুজন, সমাজকল্যাণ সম্পাদক সাইমুল ইসলাম সাজু উপস্থিত ছিলেন।

তিন দফা বিয়ের প্রস্তাব এলেও অনড় নার্গিসের কারণে মা-বাবা তার বিয়ে দিতে পারেননি। অথচ নবম শ্রেণির বাকি আট সহপাঠীর বিয়ে হয়েছে গেল দেড় বছরে। নার্গিসকে নিয়ে কালের কণ্ঠে দুটি সংবাদও প্রকাশিত হয়। পরে কালের কণ্ঠ সম্পাদক ইমদাদুল হক মিলনের নির্দেশে শুভসংঘের পরিচালক জাকারিয়া জামান নার্গিসের লেখাপড়া চালিয়ে নিতে প্রতি মাসে বৃত্তি ঘোষণা করেন। তারই অংশ হিসেবে গতকাল টাকা ও শিক্ষা উপকরণ দেওয়া হয়। 

এ সময় নার্গিস নাহার বলে, ‘কালের কণ্ঠ’র পক্ষ থেকে শিক্ষা উপকরণ পেয়ে আমি অনেক খুশি। এত দিন আমার প্রয়োজনীয় বই ছিল না, এখন সব বই পেয়ে আমার লেখাপড়ার সংকট দূর হলো। আমার লেখাপড়ায় আরো আগ্রহ সৃষ্টি হলো।’ নার্গিসের বাবা আব্দুল খালেক বলেন, ‘অভাবের কারণে বইসহ অনেক উপকরণ সময়মতো কিনে দিতে পারিনি। এই বই আর উপকরণ পেয়ে নার্গিসের লেখাপড়ায় আরো উৎসাহ সৃষ্টি হলো।’

প্রধান শিক্ষক ফজলার রহমান বলেন, নার্গিসকে দেখে অন্যরাও অনুপ্রেরণা পাবে। এভাবে একদিন বাল্যবিয়ের হার কমে যাবে।



সাতদিনের সেরা