kalerkantho

বৃহস্পতিবার  । ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৮। ৯ ডিসেম্বর ২০২১। ৪ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৩

চাঁদপুর পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট

আধিপত্য নিয়ে ছাত্রলীগের সংঘর্ষ

কচুয়া (চাঁদপুর) প্রতিনিধি   

১৯ সেপ্টেম্বর, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



চাঁদপুরের কচুয়ায় চাঁদপুর পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট ক্যাম্পাসে পদ-পদবি নিয়ে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে ছাত্রলীগের দুই পক্ষের সংঘর্ষে চারজন আহত হয়েছেন। গতকাল শনিবার বিকেলে এ ঘটনা ঘটে।

আহতরা হলেন চাঁদপুর পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মো. শাকিল হোসেন (২১), যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ফজলে রাব্বি (২২), সাংগঠনিক সম্পাদক রবিউল ইসলাম ও শেখ সজিব (২২)। গুরুতর আহত শাকিল হোসেন কচুয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন। বাকিরা প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে বাড়ি চলে যান।

পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটে স্থানীয় সংসদ সদস্য ড. মহীউদ্দীন খান আলমগীর এবং বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় কমিটির তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক ড. সেলিম মাহমুদ পক্ষের ছাত্রলীগ নেতাকর্মীদের মধ্যে রাজনৈতিক আধিপত্য বিস্তার নিয়ে বাগবিতণ্ডা হয়। এক পর্যায়ে উভয় পক্ষের নেতাকর্মীরা সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়েন।

আহত ফজলে রাব্বি বলেন, ‘দীর্ঘদিন কলেজ বন্ধ থাকার পর খুলে দেওয়ার আনন্দে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও মহীউদ্দীন খান আলমগীর এমপির স্লোগান দিয়ে ক্যাম্পাসে প্রবেশ করি। এ সময় সেলিম মাহমুদ গ্রুপের শেখ সজিবের নেতৃত্বে নুর মোহাম্মদ, জুনাইদ, জাহিদ, রায়হান, রাকিবসহ ২০-৩০ জন বহিরাগত আমাদের ওপর অতর্কিত হামলা চালায়।’ তিনি জানান, বর্তমান সভাপতি নাসির উদ্দীন প্রবাসে চলে যাওয়ায় শূন্য পদ পাওয়াকে কেন্দ্র করে দুই পক্ষের সংঘর্ষ বাধে।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, আহত শাকিল, ফজলে রাব্বি ও রবিউল ইসলাম মহীউদ্দীন খান আলমগীরের সমর্থক এবং শেখ সজিব সেলিম মাহমুদের সমর্থক।

মহীউদ্দীন খান আলমগীরের সমর্থক উপজেলা যুবলীগের সহসভাপতি ও পৌর কাউন্সিলর কামাল হোসেন বলেন, ‘শাকিল হোসেনের ওপর বর্বরোচিত হামলার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানানোর পাশাপাশি এই হামলায় জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানাচ্ছি। এমপি স্যারের সঙ্গে পরামর্শক্রমে মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।’

কচুয়া থানার ওসি মো. মহিউদ্দিন বলেন, ‘ঘটনাস্থলে ফোর্স পাঠিয়েছি। বর্তমানে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আছে। আহতদের পক্ষ থেকে অভিযোগ পেলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’



সাতদিনের সেরা