kalerkantho

বৃহস্পতিবার  । ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৮। ৯ ডিসেম্বর ২০২১। ৪ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৩

রিমান্ড শেষে ছয় জামায়াত নেতাসহ সাতজন জেলে

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৬ সেপ্টেম্বর, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



রাজধানীর ভাটারা থানায় সন্ত্রাসবিরোধী আইনে করা মামলায় জামায়াতে ইসলামীর সেক্রেটারি জেনারেল মিয়া গোলাম পরওয়ারসহ সাত আসামিকে তাঁদের জামিন আবেদন খারিজ করে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দিয়েছেন আদালত। গতকাল বুধবার ঢাকার অতিরিক্ত মহানগর হাকিম তোফাজ্জল হোসেনের আদালত উভয় পক্ষের শুনানি শেষে এই আদেশ দেন।

কারাগারে যাওয়া অন্য আসামিরা হলেন জামায়াতের সহকারী সেক্রেটারি জেনারেল রফিকুল ইসলাম খান, নির্বাহী পরিষদের সদস্য ইজ্জত উল্লাহ, মোবারক হোসাইন, শুরা সদস্য ইয়াসিন আরাফাত ও নায়েবে আমির আ ন ম শামসুল ইসলাম এবং তাঁর বাবুর্চি ইমাম হোসেন।

গতকাল ওই সাতজনকে রিমান্ড শেষে আদালতে হাজির করে পুলিশ। এরপর মামলার তদন্ত শেষ না হওয়া পর্যন্ত তাঁদের কারাগারে আটক রাখার আবেদন করেন তদন্তকারী কর্মকর্তা ডিবি পুলিশের পরিদর্শক কাজী ওয়াজেদ আলী। তাঁদের আইনজীবী জামিন আবেদন করেন।

গত ৬ সেপ্টেম্বর রাজধানী থেকে মিয়া গোলাম পরওয়ারসহ ৯ জনকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। এরপর ওই দিন রাতে ভাটারা থানায় তাঁদের বিরুদ্ধে সন্ত্রাসবিরোধী আইনে মামলা করে পুলিশ। এ ছাড়া মামলায় অনেককে অজ্ঞাতপরিচয় আসামি করা হয়। ৭ সেপ্টেম্বর এই মামলায় ওই ৯ জনের চার দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালত। ৯ সেপ্টেম্বর উত্তরার বাসা থেকে শামসুল ইসলাম ও ইমাম হোসেনকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। ১০ সেপ্টেম্বর ঢাকা মহানগর হাকিম দেবব্রত বিশ্বাসের আদালত তাঁদের চার দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

১২ সেপ্টেম্বর গোলাম পরওয়ারসহ পাঁচজনের ফের দুই দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালত। এদিন আদালতে গোলাম পরওয়ারের গাড়িচালক মনিরুল ইসলাম ও জামায়াতের কর্মী আব্দুল কালাম স্বেচ্ছায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন।



সাতদিনের সেরা