kalerkantho

সোমবার । ৯ কার্তিক ১৪২৮। ২৫ অক্টোবর ২০২১। ১৭ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

সীতাকুণ্ডে ৩ মৃত ডলফিন

সীতাকুণ্ড (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি   

১৬ সেপ্টেম্বর, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



সীতাকুণ্ডে ৩ মৃত ডলফিন

এবার চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডে সাগরপারে ভেসে এলো তিনটি মৃত ডলফিন। গতকাল বুধবার দুপুরে বাড়বকুণ্ড ইউনিয়নের মিয়াজীপাড়া এলাকায় ডলফিনগুলো দেখতে পায় এলাকাবাসী।

এ নিয়ে গত প্রায় এক সপ্তাহে সাতটি মৃত ডলফিন ভেসে আসার খবর পাওয়া গেছে। এর মধ্যে গত ৯ সেপ্টেম্বর পটুয়াখালীর কুয়াকাটা সৈকতে তিনটি এবং গত মঙ্গলবার রংপুরের তিস্তায় একটি মৃত ডলফিন ভেসে আসে।

সীতাকুণ্ডে ভেসে আসা ডলফিনের বিষয়ে উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তার ধারণা, মিঠা পানির এই ডলফিনগুলো সাগরের দূষিত পানিতে এসে মারা পড়েছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, বাড়বকুণ্ড ইউনিয়নের সাগর উপকূলের বিভিন্ন স্থানে তিনটি মৃত ডলফিন দেখতে পায় এলাকাবাসী। প্রচণ্ড গরমে সাগরপার ও উপকূলীয় বনের ভেতর পড়ে থাকা ডলফিনগুলোর শরীরে পচন ধরেছে। সাগর থেকে ডলফিন ভেসে আসার খবর ছড়িয়ে পড়ার পর কৌতূহলী এলাকাবাসী ঘটনাস্থলে ভিড় জমায়।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, মিয়াজীপাড়ায় সাগর উপকূলে একটি ডলফিন পড়ে আছে। উপকূলীয় বনের ঘাসের ওপর পড়ে থাকা ডলফিনটি আনুমানিক সাত ফুট লম্বা। এটি দেখতে হালকা হলুদ রঙের। লেজের অংশ কিছুটা কালচে হয়ে গেছে। উপকূলের দুই কিলোমিটার এলাকার মধ্যে তিনটি ডলফিন ভেসে এসেছে।

ওই এলাকার জেলে বাবুল জলদাশ কালের কণ্ঠকে বলেন, সাম্প্রতিক সময়ে সাগর উপকূলে বেশ কয়েকটি ডলফিন মারা পড়েছে। তাঁরা সাগরে প্রায়ই মরা ডলফিন ভাসতে দেখছেন। আগে এত মরা ডলফিন দেখা যেত না। কোন কারণে সাগরে এভাবে ডলফিন মারা পড়ছে তা তাঁরা বুঝতে পারছেন না।

একটি মৃত ডলফিনের ছবি পাঠিয়ে জানতে চাইলে উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা মো. শামীম আহমেদ এই প্রতিবেদককে বলেন, ‘এই ডলফিনটি মূলত মিঠা পানির অর্থাৎ নদীর ডলফিন। কোনো শাখানদী থেকে সাগরে এসে দূষিত পানির কারণে মারা গেছে বলে আমার ধারণা।’ মৃত ডলফিন ভেসে আসার খবর পেয়ে গতকাল বিকেলে ঘটনাস্থলে বন কর্মকর্তাদের পাঠানো হয়েছে বলে জানিয়েছেন সীতাকুণ্ড উপকূলীয় রেঞ্জ কর্মকর্তা মো. কামাল হোসেন। তিনি বলেন, তাঁরা গিয়ে এগুলোর সুরতহাল তৈরিসহ আনুষঙ্গিক প্রক্রিয়া সম্পন্ন করে ব্যবস্থা নেবেন।



সাতদিনের সেরা