kalerkantho

শনিবার । ১২ অগ্রহায়ণ ১৪২৮। ২৭ নভেম্বর ২০২১। ২১ রবিউস সানি ১৪৪৩

ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী

ঢাকা-নয়াদিল্লি সম্পর্ক সব ক্ষেত্রেই এগোচ্ছে

কূটনৈতিক প্রতিবেদক   

৮ সেপ্টেম্বর, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বাংলাদেশের সঙ্গে বিদ্যমান সুসম্পর্ক আরো এগিয়ে নেওয়ার বার্তা দিয়েছেন ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী সুব্রামানিয়াম জয়শঙ্কর এবং তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী অনুরাগ ঠাকুর। গতকাল মঙ্গলবার নয়াদিল্লিতে বাংলাদেশের তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী ড. হাছান মাহ্মুদের সঙ্গে আলাদা বৈঠকে তাঁরা এই বার্তা দেন। বৈঠকের পর ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এক টুইট বার্তায় জানান, ‘বাংলাদেশের তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী হাছান মাহ্মুদের সঙ্গে বৈঠক করে আমি আনন্দিত। আমাদের দ্বিপক্ষীয় সহযোগিতা সব খাতজুড়েই এগিয়ে যাচ্ছে। এ ক্ষেত্রে গণমাধ্যম ও জনগণের উপলব্ধির বিষয়ে আমরা আলোচনা করেছি।’

এর আগে ড. হাছান মাহ্মুদের সঙ্গে বৈঠকের পর ভারতের তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী অনুরাগ ঠাকুর টুইট বার্তায় লিখেছেন, ‘বাংলাদেশের তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী হাছান মাহ্মুদের সঙ্গে আনন্দময় বৈঠক হয়েছে। আমরা মানুষে মানুষে বিনিময়, ভারতীয় আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব (আইএফএফআই), দ্বিপক্ষীয়ভাবে চলচ্চিত্র নির্মাণসহ বিভিন্ন ইস্যুতে আলোচনা করেছি। আমাদের সম্পর্ক জোরালো ও ঐতিহাসিক। এটি আগামী দিনে আরো জোরালো হবে।’

তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয় জানায়, ড. হাছান মাহমুদ বাংলাদেশে বিদেশি টিভি চ্যানেলগুলোর বিজ্ঞাপনমুক্ত ‘ক্লিন ফিড’ সম্প্রচারে আইন প্রয়োগের সিদ্ধান্ত ভারতকে অবহিত করেছেন। গতকাল মঙ্গলবার সকালে নয়াদিল্লিতে তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী অনুরাগ সিং ঠাকুরের সঙ্গে তাঁর সরকারি বাসভবনে অনুষ্ঠিত বৈঠকে তিনি বিষয়টি অবহিত করেন। ওই বৈঠকে তিনি দুই দেশের যৌথ প্রযোজনায় নির্মীয়মাণ বঙ্গবন্ধুর জীবন ও কর্মভিত্তিক বায়োপিকের অগ্রগতি, বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের ওপর চলচ্চিত্র নির্মাণ এবং বাংলাদেশের স্বাধীনতার ৫০ বছর ও ভারতের স্বাধীনতার ৭৫ বছর পূর্তি উপলক্ষে সম্ভাব্য যৌথ উদ্যোগ নিয়ে আলোচনা করেন।

ভারতের তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয় জানায়, অনুরাগ ঠাকুর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জীবন ও কর্মের ওপর নির্মাণাধীন ‘বঙ্গবন্ধু’ চলচ্চিত্র নির্মাণ নিয়ে সন্তোষ প্রকাশ করেন। তিনি বলেন, চলচ্চিত্রটির বড় অংশের কাজ শেষ হয়েছে। কভিড পরিস্থিতি অনুকূলে থাকলে আগামী বছরের মার্চ মাসের মধ্যে চলচ্চিত্রটির নির্মাণকাজ শেষ হবে এবং ওই মাসেই তা আন্তর্জাতিকভাবে মুক্তি পেতে পারে। এ ছাড়া ‘১৯৭১ সালে বাংলাদেশের স্বাধীনতা’ শীর্ষক একটি তথ্যচিত্র নির্মাণে সক্রিয়ভাবে কাজ করার বিষয়েও বৈঠকে সিদ্ধান্ত হয়েছে।



সাতদিনের সেরা