kalerkantho

সোমবার । ৯ কার্তিক ১৪২৮। ২৫ অক্টোবর ২০২১। ১৭ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

স্বামী নন, অন্য যুবক গৃহবধূকে অপহরণের পর ধর্ষণ করেন

পৃথক স্থানে হামলা ও ধর্ষণচেষ্টা

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

৬ সেপ্টেম্বর, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



রংপুরে এক গৃহবধূকে অপহরণের পর গুম করে হত্যার অভিযোগ ওঠে স্বামীর বিরুদ্ধে। পুলিশের তদন্তে উঠে এসেছে, স্বামী নন, অন্য এক যুবক ওই গৃহবধূকে অপহরণ ও ধর্ষণ করেন। গুম হওয়া গৃহবধূকে গাজীরপুর থেকে উদ্ধার করেছে পিবিআই।

এদিকে চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডে এক নারীকে (২৬) ধর্ষণ এবং তাঁর তিন লাখ টাকা আত্মসাতের অভিযোগে এক ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। চাঁদপুরের ফরিদগঞ্জে এক কলেজছাত্রীকে মায়ের কাছ থেকে ছিনিয়ে ধর্ষণচেষ্টার অভিযোগ উঠেছে প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে। এ সময় মেয়েকে রক্ষায় মা এগিয়ে গেলে তাঁদের দুজনের ওপর হামলা চালানো হয়। বগুড়ার ধুনট উপজেলায় হত্যার হুমকি দিয়ে মাদরাসাছাত্রীকে ধর্ষণচেষ্টা মামলার আসামিকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

রংপুরে পিবিআই সূত্রে জানা যায়, গত ১৭ আগস্ট রংপুর সদরের এক নারী আদালতে অভিযোগ করেন, তাঁর মেয়েকে খুনের উদ্দেশ্যে জামাতা অপহরণ করে গুম করেছেন। আদালত মামলাটির তদন্ত করতে পিবিআইকে আদেশ দেন। রংপুর পিবিআই তথ্য-প্রযুক্তি ব্যবহার করে অবস্থান নিশ্চিত হয়ে কথিত গুম হওয়া নারীকে গত শুক্রবার গাজীপুরের কালিয়াকৈর থানার পল্লীবিদ্যুৎ এলাকার জসুমন ব্যাপারীর বাসা থেকে উদ্ধার করে। একই সঙ্গে পাবনার চাটমোহর এলাকার নুরুল ইসলামের ছেলে মিঠু মোল্লাকে (২৬) গ্রেপ্তার করে। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই শফিউল আলম জানান, উদ্ধার হওয়া নারী আদালতে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দিতে বলেছেন, তাঁকে ভুল বুঝিয়ে ও বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে মিঠু মোল্লা অপহরণ করে ২৪ দিন পাবনা ও গাজীপুরের বিভিন্ন স্থানে নিয়ে আটকে রেখে ধর্ষণ করেছেন।

ফরিদগঞ্জ উপজেলার ষোলদানা গ্রামে গত বৃহস্পতিবার ভোরে হামলাকারীদের হাতে মা-মেয়ে গুরুতর আহত হন। তাঁদের কাছে থাকা টাকা, স্বর্ণালংকার এবং মোবাইল ফোনও কেড়ে নেয় হামলাকারীরা। তবে ঘটনার পরপরই ৯৯৯-এ কল দিলে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে মা-মেয়েকে উদ্ধার করে চাঁদপুর জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করেছে। একটি কলেজ থেকে স্নাতকোত্তর পাস করা ভুক্তভোগী ছাত্রীর বাবা অসুস্থ হওয়ার পর গাজীপুর থেকে গোটা পরিবারটি ফিরে আসে ষোলদানা গ্রামে। কিন্তু পরিবারটির বেদখল হওয়া ভিটেবাড়ি নিয়ে বিরোধ শুরু হয় প্রতিপক্ষ ইব্রাহিম বেপারী এবং তাফাজ্জল বেপারীর সঙ্গে। গত ২৬ আগস্ট ছাত্রী ও তাঁর মায়ের ওপর হামলা করেন তাঁরা। পরে মা ৩১ আগস্ট চাঁদপুরের আদালতে মামলা করেন। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে গত বৃহস্পতিবার ইব্রাহিম ও তাফাজ্জল সবুজ ও বশির নামে দুই যুবককে মা-মেয়ের ওপর লেলিয়ে দেন। আত্মরক্ষায় তাঁরা বাড়ি থেকে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করলে সবুজ ও বশির তাঁদের ওপর হামলা করেন।

সীতাকুণ্ডে গতকাল বিকেলে গ্রেপ্তার ইকবাল হোসেন মানিক (৫৫) উপজেলার বারৈয়ারঢালা ইউনিয়নের বহরপুর কোব্বাতের বাড়ির মৃত আবুল মিয়ার ছেলে। ৮ আগস্টের ঘটনায় গতকাল মামলা করেন ভুক্তভোগী।

ধুনটে ৬ জুলাই রাতের ঘটনায় শনিবার সন্ধ্যায় গ্রেপ্তার গোলাম রব্বানী (৪০) উপজেলার রাঙ্গামাটি-দিদারপাড়া গ্রামের হবিবর রহমানের ছেলে ও দাদন ব্যবসায়ী। গতকাল তাঁকে আদালত বগুড়া জেলা কারাগারে পাঠিয়েছেন। ধুনট থানার ওসি কৃপা সিন্ধু বালা বলেন, তদন্তে অভিযোগের সত্যতা পাওয়া গেছে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে রব্বানী অভিযোগ স্বীকার করেছেন।

[প্রতিবেদনে তথ্য দিয়েছেন কালের কণ্ঠ’র রংপুর অফিস এবং চাঁদপুর, সীতাকুণ্ড ও ধুনট প্রতিনিধি]



সাতদিনের সেরা