kalerkantho

সোমবার ।  ২৩ মে ২০২২ । ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ । ২১ শাওয়াল ১৪৪৩  

ডিএনসিসি মাঠ উন্নয়ন প্রকল্প

ব্যয় কমে বাড়ল মেয়াদ

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২৮ আগস্ট, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



মালিকানা জটিলতা ও মেট্রো রেল প্রকল্পের কারণে ‘ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের উন্মুক্ত স্থানসমূহের আধুনিকায়ন, উন্নয়ন ও সবুজায়ন’ প্রকল্প থেকে চারটি মাঠের উন্নয়ন কার্যক্রম বাদ পড়েছে। ২০১৭ সালের মূল অনুমোদিত উন্নয়ন প্রকল্প প্রস্তাবে (ডিপিপি) ২২টি পার্ক ও চারটি খেলার মাঠের উন্নয়ন বাবদ ব্যয় ধরা হয়েছিল ১৩৭ কোটি ৫৪ লাখ ৩৪ হাজার টাকা। আর সংশোধিত ডিপিপিতে চারটি পার্ক বাদ পড়ায় প্রস্তাব করা হয়েছে ১২৯ কোটি ৯৩ লাখ ১৩ হাজার টাকা। পাশাপাশি প্রকল্পের মেয়াদ বাড়ানো হয়েছে ২০২২ সালের জুন পর্যন্ত।

বিজ্ঞাপন

প্রথম সংশোধনী প্রস্তাবের ওপর অনুষ্ঠিত পিইসি (প্রকল্প মূল্যায়ন কমিটি) সভার কার্যবিবরণী সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে।

বাদ পড়া চারটি পার্ক হলো বারিধারা নার্সারি পার্ক, ফার্মগেট আনোয়ারা উদ্যান, ফার্মগেট ত্রিকোণ পার্ক এবং মিরপুর গুদারাঘাট পার্ক।

এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে ডিএনসিসির অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী (ভারপ্রাপ্ত) ড. তারিক বিন ইউসুফ কালের কণ্ঠকে বলেন, সংশোধিত প্রকল্প পরিকল্পনা কমিশনে পাঠানো হয়েছে। সেখানে প্রকল্প ব্যয় কমেছে। মাঠগুলো বাদ পড়ার কারণ, বারিধারা পার্কটি বারিধারা সোসাইটি কর্তৃক উন্নয়ন করা হয়েছে। আর ফার্মগেটের পার্ক দুটি মেট্রো রেলের কারণে এবং মিরপুরের পার্কটি মালিকানা জটিলতার কারণে বাদ পড়েছে। ’

জানা গেছে, কার্যকর, টেকসই ও বসবাস উপযোগী অবকাঠামো নির্মাণ এবং পরিবেশ উন্নয়নের জন্য প্রকল্পটি নেওয়া হয়। ২০১৭ সালের ১৪ মার্চ প্রকল্পটি একনেক অনুমোদন করে। ২০১৭ সালের জানুয়ারি থেকে ২০১৯ সালের জুনের মধ্যে প্রকল্পটি বাস্তবায়নের জন্য সময় নির্ধারণ করা হয়। পরে স্থানীয় সরকার বিভাগ প্রকল্পটির মেয়াদ ২০২০ সালের জুন পর্যন্ত বাড়ায়। এরপর আরো এক বছর বাড়ানো হয় মেয়াদ। আর এবার ২০২২ সালের জুন পর্যন্ত প্রকল্পের মেয়াদ বাড়ানো হলো।



সাতদিনের সেরা