kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ১৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৮। ২ ডিসেম্বর ২০২১। ২৬ রবিউস সানি ১৪৪৩

জামায়াত নেতার নামে মামলা

বিশ্ববিদ্যালয়ের ১৫ কোটি টাকা আত্মসাৎ

সীতাকুণ্ড (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি   

৭ আগস্ট, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বিশ্ববিদ্যালয়ের ১৫ কোটি টাকা আত্মসাৎ

চট্টগ্রামের আন্তর্জাতিক ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ে (আইআইইউসি) প্রায় ১৫ কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগ উঠেছে জামায়াতে ইসলামীর নায়েবে আমির আ ন ম মুহাম্মদ শামছুল ইসলামের বিরুদ্ধে। সীতাকুণ্ড থানায় তিনিসহ ১০ জনের নামে গত বৃহস্পতিবার রাতে বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষে মামলা করেন অধ্যাপক ড. হুমায়ন কবির।

থানায় দায়ের করা এজাহার সূত্রে জানা যায়, বিশ্ববিদ্যালয় ট্রাস্টি বোর্ডের নিয়ম অনুযায়ী একটিমাত্র ব্যাংকে হিসাব ও লেনদেন করা যাবে। অথচ ট্রাস্টি বোর্ডের সাবেক চেয়ারম্যান শামছুলসহ তাঁর অনুসারী ১০ জন শিক্ষক ও কর্মকর্তা পরস্পরের যোগসাজশে বিভিন্ন ব্যাংকে হিসাব খোলেন। তাঁরা ২০১৭-১৮ থেকে ২০২০-২১ সালের বিভিন্ন সময়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের ১৪ কোটি ৮৯ লাখ ৮৮ হাজার ৩১৫ টাকা আত্মসাৎ করেন। বর্তমান পরিচালনা কমিটির নিরীক্ষণে এই টাকার হদিস না পাওয়ায় কর্তৃপক্ষের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী থানায় মামলা করা হয়। এতে আ ন ম মুহাম্মদ শামছুল ইসলামসহ এজাহারভুক্ত অন্য আসামিরা হলেন জামায়াতের আরেক নায়েবে আমির প্রফেসর আহসান উল্ল্যাহ ভূঁইয়া, মোহাম্মদ আমীরুজ্জামান, অধ্যাপক ড. আবদুল হামিদ চৌধুরী, অধ্যাপক কে এম গোলাম মহিউদ্দিন, অধ্যাপক ড. মো. আলী আজাদী, তৌফিকুর রহমান, মো. কামাল উদ্দিন, অধ্যাপক ড. মো. মাহবুবুর রহমান ও আব্দুল খালেক। তবে এ বিষয়ে তাৎক্ষণিকভাবে অভিযুক্ত কারো বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।

মামলাটি তদন্তের দায়িত্ব পেয়েছেন সীতাকুণ্ড থানার ওসি (তদন্ত) সুমন বণিক। এ বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘বিশ্ববিদ্যালয়ের টাকা আত্মসাতের অভিযোগে কর্তৃপক্ষ ১০ জনের বিরুদ্ধে মামলা করেছে। আমরা আসামিদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেব। এরই মধ্যেই আমরা কাজ শুরু করেছি।’

সীতাকুণ্ড থানার ওসি মো. আবুল কালাম আজাদ বলেন, ‘সীতাকুণ্ড-চট্টগ্রামের বিভিন্ন ব্যাংকে বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে অ্যাকাউন্ট খুলে এসব টাকা আত্মসাত করা হয়েছে বলে অভিযোগ করেছে কর্তৃপক্ষ। আমরা আসামিদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেব।’



সাতদিনের সেরা