kalerkantho

রবিবার । ১৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৮। ২৮ নভেম্বর ২০২১। ২২ রবিউস সানি ১৪৪৩

ভাঙনে স্কুল নদীতে

মানিকগঞ্জ প্রতিনিধি   

৭ আগস্ট, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ভাঙনে স্কুল নদীতে

নদীভাঙনে বিলীন হচ্ছে মানিকগঞ্জের হরিরামপুর উপজেলার সুতালড়ী রামচন্দ্রপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ভবন। ছবি : কালের কণ্ঠ

মানিকগঞ্জের হরিরামপুর উপজেলার সুতালড়ী রামচন্দ্রপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ভবন ভাঙনের মুখে পড়েছে। এরই মধ্যে ভবনের একাংশ নদীগর্ভে চলে গেছে। ভাঙন অব্যাহত থাকলে পুরো ভবনটি নদীতে বিলীন হয়ে যাবে।

উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তার কার্যালয় ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, ১৯৩৭ সালে বিদ্যালয়টি ধুলশুড়ায় স্থাপিত হয়। পরে নদীভাঙনের কবলে পড়ে বিদ্যালয়টি ২০০৭ সালে সুতালড়ী ইউনিয়নে স্থানান্তরিত হয়। এরপর বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত প্রাথমিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান পুনর্বাসন/পুনর্নির্মাণ প্রকল্পের আওতায় ৪৫ ফুট দৈর্ঘ্য ও ১২ ফুট প্রস্থবিশিষ্ট দোতলা ভবন নির্মিত হয়। তখন নদীর সীমানা ছিল বিদ্যালয় থেকে প্রায় দুই কিলোমিটার দূরে।

স্থানীয়রা জানায়, এ বছর বর্ষার শুরুতে পদ্মা নদীতে পানি বৃদ্ধির সঙ্গে সঙ্গে প্রায় দুই মাস আগে ওই এলাকায় ভাঙন শুরু হয়। তবে ১৫ দিন ধরে ভাঙনের তীব্রতা বেড়েছে। গত বুধবার রাতে বিদ্যালয় ভবনের এক-তৃতীয়াংশ ভেঙে যায়। ভাঙনের খবর পেয়ে গতকাল শুক্রবার সকালে জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা তাপস কুমার অধিকারী, উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মো. জালাল উদ্দিনসহ আরো কয়েকজনকে নিয়ে ঘটনাস্থলে আসেন।

হরিরামপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. সাইফুল ইসলাম বলেন, ‘জেলা প্রশাসকসহ পানি উন্নয়ন বোর্ডকে জানিয়েছি।’

মানিকগঞ্জ পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. মাঈন উদ্দিন বলেন, ‘চরাঞ্চল আমাদের কর্মপরিধির বাইরে। এর পরও গত ১ তারিখ থেকে বিদ্যালয়টি রক্ষার জন্য জরুরি ভিত্তিতে ২০০ মিটার অংশে প্রায় ৯ হাজার জিও ব্যাগ ডাম্পিং করা হয়েছে। ভাঙনের তীব্রতার কারণে তাতে কাজ হয়নি।’



সাতদিনের সেরা