kalerkantho

শুক্রবার । ৬ কার্তিক ১৪২৮। ২২ অক্টোবর ২০২১। ১৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

দুই গাড়ির চাপায় শিশু ও পুলিশ সদস্য নিহত

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

৬ আগস্ট, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



চট্টগ্রামের সাতকানিয়ায় দায়িত্বরত অবস্থায় মাইক্রোবাসের চাপায় দোহাজারী হাইওয়ে থানার এক কনস্টেবল নিহত এবং এক কনস্টেবল আহত হয়েছেন। গাজীপুরের টঙ্গীতে একটি কারখানার গাড়ির চাপায় প্রাণ গেছে এক শিশুর। গত বুধবার রাতে এবং গতকাল বৃহস্পতিবার এসব দুর্ঘটনা ঘটে।

সাতকানিয়ায় গতকাল সকালে নিহত কনস্টেবল মো. রাব্বি ভুঁইয়া (২২) নরসিংদীর পলাশ থানার মালিথা চরসিন্দু এলাকার মোজাম্মেল হকের ছেলে। আহতের নাম মো. আরাফাত হোসেন (২১)। দোহাজারী হাইওয়ে থানার সামনে চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কে চেকপোস্ট বসিয়ে লকডাউনের দায়িত্ব পালনকালে এ দুর্ঘটনা ঘটে। টঙ্গীতে বুধবার দুপুরে জাবের অ্যান্ড জোবায়েরে ফেব্রিক্স লিমিটেড কারখানার ফোর ক্লিপ গাড়ির চাপায় শিশু কোরবান আলী (২) আহত হয়। এদিন রাত ৮টায় রাজধানীর ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব নিউরো সায়েন্স হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যু হয় তার। সে স্থানীয় আজিজুর রহমান রাজুর ছেলে।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, দোহাজারী হাইওয়ে থানার এসআই মো. ফারুক ও এএসআই মো. আদম আলীর নেতৃত্বে দায়িত্বরত একদল পুলিশ চট্টগ্রামমুখী বেপরোয়া গতির যাত্রীবাহী মাইক্রোবাসকে (চট্টমেট্রো-চ-১১-৫২২৫) থামানোর জন্য সংকেত দেন। চালক গাড়ির গতি কিছুটা কমিয়ে দিলে পুলিশ সদস্যরা গাড়িটির কাছে যান। আর তখনই চালক দ্রুতগতিতে টান দিয়ে পালিয়ে যাওয়ার সময় গাড়িটির চাপায় কনস্টেবল রাব্বি ভূঁইয়া নিহত ও আরাফাত হোসেন আহত হন। পরে আরাফাতকে দোহাজারী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হয়।

এদিকে ঘাতক মাইক্রোবাসটিকে লোকজন ধাওয়া করলে দোহাজারীতে দাঁড়িয়ে থাকা অবস্থায় একটি গাড়িকে ধাক্কা দিয়ে ফেলে রেখে চালক পালিয়ে যান। পরে পুলিশ মাইক্রোবাসটি জব্দ করে হাইওয়ে থানায় নেয়। সাতকানিয়া থানার ওসি মো. আনোয়ার হোসেন ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

দোহাজারী হাইওয়ে থানার এএসআই মো. আদম আলী বলেন, ‘লকডাউনে যাত্রীবাহী যানবাহন চলাচল বন্ধ থাকলেও মাইক্রোবাসটি লকডাউন অমান্য করে যাত্রী পরিবহন করছিল।’

দোহাজারী হাইওয়ে থানার ওসি মো. আবদুর রব বলেন, চালক মাইক্রোবাসটির গতি কিছুটা কমিয়ে থামানোর অভিনয় করে পুলিশকে চাপা দিয়ে পালিয়ে যান। রাব্বি ভূঁইয়ার লাশ চমেক হাসপাতালে ময়নাতদন্তের পর বাড়িতে পাঠানো হয়েছে। এ ব্যাপারে সাতকানিয়া থানায় মামলা করা হয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, গত বুধবার দুপুরে ফোর ক্লিপের সাহায্যে জাবের অ্যান্ড জোবায়ের কারখানার মালামাল লোড-আনলোডের কাজ চলছিল। এ সময় রাস্তা পার হতে গেলে শিশুটি ফোর ক্লিপের চাকায় পিষ্ট হয়ে গুরুতর আহত হয়। স্থানীয় লোকজন তাকে উদ্ধার করে শহীদ আহসান উল্লাহ মাস্টার জেনারেল হাসপাতালে নিলে চিকিৎসক উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় পাঠান।

[প্রতিবেদনে তথ্য দিয়েছেন কালের কণ্ঠ’র সাতকানিয়া ও টঙ্গী প্রতিনিধি]



সাতদিনের সেরা