kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ৮ আশ্বিন ১৪২৮। ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১। ১৫ সফর ১৪৪৩

সৈয়দ আশরাফের ম্যুরাল ভাঙচুর একজন আটক

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকা ও কিশোরগঞ্জ প্রতিনিধি   

৩১ জুলাই, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



কিশোরগঞ্জে প্রয়াত মন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আশরাফুল ইসলামের ম্যুরাল (প্রতিকৃতি) ভাঙচুর করা হয়েছে। গত বৃহস্পতিবার রাতের এই ঘটনায় সব শ্রেণি-পেশার মানুষ তীব্র নিন্দা জানিয়েছে। উদ্বেগ ও প্রতিবাদ জানিয়ে বিবৃতি দিয়েছে সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট ও সম্মিলিত সামাজিক আন্দোলন। ভাঙচুরের ঘটনায় গতকাল সন্ধ্যায় পারভেজ নামের একজনকে আটক করেছে পুলিশ।

কিশোরগঞ্জ সদর মডেল থানার ওসি আবু বকর সিদ্দিক জানান, পারভেজের বাড়ি কিশোরগঞ্জের ইটনা উপজেলার রায়টুটী গ্রামে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তিনি ম্যুরাল ভাঙচুরের কথা স্বীকার করেছেন।

কিশোরগঞ্জ পৌর মেয়র পারভেজ মিয়া জানান, শহরের ‘শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম চত্বরে’ দুটি ম্যুরাল আছে। একটি শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলামের এবং অন্যটি তাঁর ছেলে সৈয়দ আশরাফুল ইসলামের। বৃহস্পতিবার রাতে ম্যুরালটির কিছু অংশ ভাঙা হয়।

জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এম এ আফজল বলেন, ‘সৈয়দ আশরাফের মুর‌্যালে ভাঙচুর চালানো মানে একটি চেতনার ওপর হামলা চালানো।’

জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মো. মাজহারুল ইসলাম বলেন, ‘এ ঘটনায় আমরাও আঘাত পেয়েছি। কারণ সৈয়দ আশরাফ একজন সৎ ও নিষ্ঠবান নেতা ছিলেন।’

কিশোরগঞ্জ শহর আওয়ামী লীগের সভাপতি আলমগীর হোসেন বলেন, ‘আমি মনে করি, এটি উগ্র মৌলবাদী গোষ্ঠীর অপকর্ম।’

ম্যুরাল ভাঙচুরের ঘটনায় মামলা হয়েছে।

উদ্বেগ-প্রতিবাদ : সৈয়দ আশরাফুল ইসলামের ম্যুরাল ভাঙচুরের ঘটনায় উদ্বেগ ও প্রতিবাদ জানিয়েছে সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট ও সম্মিলিত সামাজিক আন্দোলন।  সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের সভাপতি গোলাম কুদ্দুছ ও সাধারণ সম্পাদক হাসান আরিফ এক বিবৃতিতে এই ‘অমার্জনীয় অপরাধের’ সঙ্গে যুক্ত ব্যক্তিদের অবিলম্বে গ্রেপ্তার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি  প্রদানের জন্য সরকারের কাছে দাবি জানান।

সম্মিলিত সামাজিক আন্দোলনের সাধারণ সম্পাদক সালেহ আহমেদ এক বার্তায়  বলেন, ‘একটি সভ্য সমাজে এভাবে ম্যুরাল ভাঙচুর অকল্পনীয়। স্থানীয়ভাবে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষার দায়িত্বে থাকা পুলিশ, প্রশাসন, জনপ্রতিনিধি কেউই এই ঘটনার দায় এড়াতে পারে না। আমরা এই ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত দাবি করছি, একই সঙ্গে অপরাধীদের দ্রুত গ্রেপ্তার ও কঠোর শাস্তি দাবি জানাচ্ছি।’



সাতদিনের সেরা