kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ৫ কার্তিক ১৪২৮। ২১ অক্টোবর ২০২১। ১৩ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

‘জামায়াত-হেফাজতের প্রতি নমনীয়তা হবে আত্মঘাতী’

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২৭ জুলাই, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



একাত্তরের ঘাতক-দালাল নির্মূল কমিটির সভাপতি লেখক-সাংবাদিক শাহরিয়ার কবির বলেছেন, জামায়াত-হেফাজতের প্রতি যেকোনো ধরনের নমনীয়তা সরকার ও রাষ্ট্রের জন্য আত্মঘাতী হবে। বঙ্গবন্ধুর রাজনৈতিক আদর্শের দর্পণ বাহাত্তরের সংবিধান পুনঃপ্রবর্তন করেই বাংলাদেশ থেকে জঙ্গি, মৌলবাদী সন্ত্রাস নির্মূল করতে হবে। জামায়াত-হেফাজতের ধর্মের নামে সন্ত্রাসের রাজনীতি অব্যাহত থাকলে অন্তিমে বাংলাদেশ মৌলবাদী জঙ্গিদের স্বর্গরাজ্যে পরিণত হবে। গতকাল সোমবার বিকেল ৩টায় একাত্তরের ঘাতক-দালাল নির্মূল কমিটি চট্টগ্রাম শাখার উদ্যোগে ‘জঙ্গি মৌলবাদী প্রতিরোধে সরকার ও নাগরিক সমাজের দায়িত্ব’ শীর্ষক এক ওয়েবিনারের তিনি এ কথা বলেন। ১৯৯৪ সালের ২৬ জুলাই যুদ্ধাপরাধী জামায়াতপ্রধান গোলাম আযমের চট্টগ্রাম আগমন ও ঘোষিত জনসভার বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানাতে গিয়ে জামায়াত-শিবিরের ঘাতকদের গুলিতে ছাত্রলীগ ও নির্মূল কমিটির পাঁচজন তরুণ কর্মী শহীদ ও শতাধিক আহত হয়েছিলেন। চট্টগ্রামের বীর শহীদদের স্মরণে প্রতিবছর নির্মূল কমিটি ২৬ জুলাই আলোচনাসভার আয়োজন করে। নির্মূল কমিটির চট্টগ্রাম বিভাগের সমন্বয়কারী ও কেন্দ্রীয় সহসাধারণ সম্পাদক সাংবাদিক শওকত বাঙালীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আলোচনায় অংশ নেন নির্মূল কমিটির কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক কাজী মুকুল, চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের সাবেক ভারপ্রাপ্ত মেয়র খোরশেদ আলম সুজন, মুক্তিযোদ্ধা প্রফেসর হান্নানা বেগম, দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মফিজুর রহমান, নির্মূল কমিটি চট্টগ্রাম জেলার সভাপতি প্রকৌশলী দেলোয়ার মজুমদার প্রমুখ।



সাতদিনের সেরা