kalerkantho

রবিবার । ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৮। ৫ ডিসেম্বর ২০২১। ২৯ রবিউস সানি ১৪৪৩

জিএনবির অনলাইন আলোচনা

প্রাথমিক স্বাস্থ্যসেবায় কমিউনিটি স্বাস্থ্যকর্মী গড়ে তোলার তাগিদ

নিজস্ব প্রতিবেদক    

৮ জুলাই, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



প্রাথমিক স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করতে সারা দেশে কমিউনিটি স্বাস্থ্যকর্মী গড়ে তোলার আহ্বান জানিয়েছেন দেশি-বিদেশি স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ ও উন্নয়নকর্মীরা। তাঁরা বলেছেন, প্রতিটি গ্রামে কমিউনিটি হেলথ ওয়ার্কার (সিএইচডাব্লিউ) বা কমিউনিটি স্বাস্থ্যকর্মী গড়ে তোলা গেলে তাঁরা স্থানীয় জনগণের স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করতে পারবেন। তাঁরা বাল্যবিয়ে প্রতিরোধসহ বিভিন্ন সামাজিক কাজেও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবেন।

গতকাল বুধবার গুড নেইবারস-বাংলাদেশ (জিএনবি) আয়োজিত এক অনলাইন সেমিনারে এ সুপারিশ করেন তাঁরা। সংগঠনের ২৫ বছর পূর্তি উপলক্ষে আয়োজিত ওই সেমিনারে সভাপতিত্ব করেন জিএনবির কান্ট্রি ডিরেক্টর এম মাঈনউদ্দিন মঈনুল। আলোচনায় অংশ নেন নর্থ সাউথ ইউনিভার্সিটির সাবেক পরিচালক (পলিসি অ্যান্ড প্ল্যানিং) ড. নাজনীন আক্তার, জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ আবু জামিল ফয়সাল, কোরিয়ার প্রকল্প কর্মকর্তা সিওন লি, উন্নয়নকর্মী ফারজানা ব্রাউনিয়া প্রমুখ। সেমিনারে গুড নেইবারস-কোরিয়া ও গুড নেইবারস-কম্বোডিয়ার প্রতিনিধিসহ বাংলাদেশের বেসরকারি খাতে জনস্বাস্থ্য নিয়ে কাজ করা প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।

সভাপতির বক্তব্যে এম মাঈনউদ্দিন মঈনুল তৃণমূল পর্যায়ে জনগণের স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করতে গুড নেইবারসের উদ্যোগের কথা তুলে ধরে বলেন, মহামারি করোনাকালেও কমিউনিটি স্বাস্থ্যকর্মীরা কাজ করছেন। অনেক চ্যালেঞ্জ নিয়ে তাঁরা সমাজের সুবিধাবঞ্চিত মানুষকে মানসম্পন্ন স্বাস্থ্যসেবা দিচ্ছেন। এই কাজের সঙ্গে সরকারের সম্পৃক্ততা জরুরি। সরকারি ও বেসরকারি সংস্থাগুলোর সমন্বিত কাজের মাধ্যমে আগামীতে জনগণের স্বাস্থ্য সুরক্ষা নিশ্চিত করা সম্ভব হবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন।

জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ আবু জামিল ফয়সাল বলেন, প্রাথমিক স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করার ক্ষেত্রে কমিউনিটি হেলথ ওয়ার্কার (সিএইচডাব্লিউ) প্রগ্রাম দৃষ্টান্ত স্থাপন করছে। গ্রামের সাধারণ নারীরা এখানে বিশেষ দায়িত্ব পালন করছেন। তাঁরা বাল্যবিয়ে বন্ধ ও অনিরাপদ গর্ভধারণসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছেন। এই কার্যক্রম পরিবার পরিকল্পনা কার্যক্রমে সহায়তা করতে পারে। বিষয়টি সরকারের আগামী পঞ্চবার্ষিকী পরিকল্পনায় অন্তর্ভুক্ত করার সুপারিশ করেন তিনি।

অধ্যাপক ড. নাজনীন আক্তার বলেন, কমিউনিটি স্বাস্থ্যকর্মীদের সেবা এরই মধ্যে গ্রহণযোগ্যতা অর্জন করেছে। সারা দেশে এই কার্যক্রম গড়ে তোলা দরকার। বিষয়টি নিয়ে সরকারের নীতিনির্ধারক মহলের সঙ্গে আলোচনা হতে পারে। কমিউনিটিভিত্তিক এই কার্যক্রমের মাধ্যমে দ্রুত সফলতা অর্জন করা সম্ভব।



সাতদিনের সেরা