kalerkantho

মঙ্গলবার । ১০ কার্তিক ১৪২৮। ২৬ অক্টোবর ২০২১। ১৮ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

সেনাবাহিনীর আরো খাদ্যসামগ্রী বিতরণ

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

৮ জুলাই, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



করোনাভাইরাস পরিস্থিতি মোকাবেলায় দেশের বিভিন্ন স্থানে গতকাল বুধবারও খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করেছে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী। এর মধ্যে গোপালগঞ্জের তিন উপজেলায় করোনায় ক্ষতিগ্রস্ত নিম্ন আয়ের দেড় হাজার লোকের মাঝে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করা হয়। আর পটুয়াখালীর কলাপাড়ায় বঙ্গোপসাগরে সরকারের ঘোষিত ৬৫ দিনের অবরোধে আয়-রোজগারহীন ৫০টি জেলে পরিবারের মাঝে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করে সেনাবাহিনী।

টুঙ্গিপাড়ায় উপজেলা হেলিপ্যাডে, কাশিয়ানী উপজেলা সদরে এবং মুকসুদপুর উপজেলা সদরে সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত সেনাবাহিনীর ৫৫ পদাতিক ডিভিশনের পক্ষ থেকে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করা হয়। এর মধ্যে ছিল পাঁচ কেজি চাল, তিন কেজি আলু, দুই কেজি পেঁয়াজ, তিন কেজি ডাল, তিন কেজি তেল, এক কেজি লবণ ও দুই কেজি চিনি। প্রধান অতিথি ১৪ ইস্ট বেঙ্গল রেজিমেন্টের অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল মোহাম্মদ আলমগীর হোসেন এই খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন মেজর মোসাদ্দেক ইবনে মুজিব, মেজর মো. তানজীর আহম্মদ, মেজর তানভীর আহম্মদ, ক্যাপ্টেন শাহাদাৎ হোসেন সৌরভ, ক্যাপ্টেন শাহ-ই-মাশরুর রামীম ও লেফটেন্যান্ট সাদাফ আবরার রাইয়ান।

সকালে কলাপাড়ার কুয়াকাটা সৈকতসংলগ্ন জেলেপল্লীর বাড়ি বাড়ি গিয়ে সেনাবাহিনীর ৭ পদাতিক ডিভিশনের উদ্যোগে ৭ আর্টিলারি ব্রিগেডের ৪৯ ফিল্ড রেজিমেন্ট আর্টিলারির সেনা সদস্যরা নিজস্ব রসদ ভাণ্ডার থেকে রেশনসাগ্রমী পৌঁছে দেন। এর মধ্যে রয়েছে চাল, ডাল, তেলসহ নিত্যপ্রয়োজনীয় খাদস্যসামগ্রী। এ সময় উপস্থিত ছিলেন লেফটেন্যান্ট কর্নেল মোহাম্মদ আমিনুল ইসলামসহ অন্য সেনা সদস্যরা।

ঝালকাঠির নলছিটি উপজেলায় করোনাকালে কঠোর লকডাউনে কর্মহীন হয়ে পড়া অর্ধশত পরিবারকে খাদ্যসামগ্রী দিয়েছে সেনাবাহিনী। সকালে বিভিন্ন এলাকায় বাড়ি বাড়ি গিয়ে অসহায় মানুষের হাতে খাদ্যসামগ্রী (চাল, ডাল, তেল, লবণ, আটা) তুলে দেন সেনাবাহিনীর ৭ পদাতিক ডিভিশন বরিশাল এরিয়ার ২২ ইঞ্জিনিয়ার ব্যাটালিয়নের ক্যাপ্টেন রাফিউদ দারাজাত।

খাগড়াছড়ির গুইমারা উপজেলায় সেনাবাহিনীর গুইমারা রিজিয়নের আওতাধীন ৩ ফিল্ড রেজিমেন্ট আর্টিলারি সিন্দুকছড়ি জোনের সেনা সদস্যরা নিজেদের রেশনসামগ্রীর কিছু অংশ বাঁচিয়ে তা দুই শতাধিক কর্মহীন অসহায় পরিবারের মাঝে বিতরণ করেন। গুইমারা, বড়পিলাক মাঠ ও সিন্দুকছড়িতে মানবিক সহায়তা হিসেবে নিত্যপ্রয়োজনীয় এ খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করেন ওই জোনের অধিনায়ক লে. কর্নেল দেওয়ান মঞ্জুরুর হক। সিন্দুকছড়ি মুখপাড়ায় সহায়তা প্রদানকালে জোনের উপ-অধিনায়ক মেজর মো. এমরান হোসেন, ক্যাপ্টেন আশিকুর রহমানসহ সামরিক কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

ত্রাণসামগ্রী গ্রহীতা রদিনী ত্রিপুরা, পনে ত্রিপুরা ও উগ্য মারমা বলেন, বর্তমানে তাঁরা কর্মহীন হয়ে পড়েছেন। তাঁদের পরিবারের এই দুঃসময়ে নিত্যপ্রয়োজনীয় খাদ্যসামগ্রী দিয়ে সহায়তার হাত বাড়িয়েছে সিন্দুকছড়ি জোনের সেনাবাহিনী।

[প্রতিবেদনে তথ্য দিয়েছেন সংশ্লিষ্ট এলাকার কালের কণ্ঠ’র প্রতিনিধিরা]



সাতদিনের সেরা