kalerkantho

রবিবার । ১ কার্তিক ১৪২৮। ১৭ অক্টোবর ২০২১। ৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

‘খালেদার চিকিৎসায় প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করছে সরকার’

নিজস্ব প্রতিবেদক   

৭ জুলাই, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



‘খালেদার চিকিৎসায় প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করছে সরকার’

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার সুচিকিৎসায় সরকার ইচ্ছাকৃতভাবে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করছে বলে অভিযোগ করেছেন দলের কেন্দ্রীয় দপ্তরের চলতি দায়িত্বে থাকা সাংগঠনিক সম্পাদক সৈয়দ এমরান সালেহ প্রিন্স। তিনি বলেছেন, খালেদা জিয়া বর্তমানে চরমভাবে অসুস্থ। গত মে মাসে তিনি অসুস্থ হয়ে পড়লে চিকিৎসার জন্য বাইরে নেওয়ার আবেদন করা হলে আইনমন্ত্রী বলেছিলেন, যে শর্তে বেগম জিয়াকে এখন মুক্তি দেওয়া হয়েছে, সেই শর্ত সংশোধন করলেই তাঁর বিদেশযাত্রা সম্ভব। কিন্তু এখন তিনি বলছেন সেটা সম্ভব নয়। এতে প্রমাণ হয় দেশনেত্রীর সুচিকিৎসার পথে সরকার ইচ্ছাকৃতভাবে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করছে।

রাজধানীর নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে গতকাল মঙ্গলবার এক সংবাদ সম্মেলনে প্রিন্স এ কথা বলেন। খালেদা জিয়াকে কারাগারে ফিরিয়ে নেওয়ার বিষয়টি চিন্তা-ভাবনা করা উচিত—তথ্যমন্ত্রীর এমন বক্তব্যের সমালোচনা করে তিনি বলেন, এই দুঃসময়ে বিএনপি জনগণের পক্ষে কথা বলার কারণে সরকারের লিপ সার্ভিস দেওয়া মন্ত্রীরা খালেদা জিয়াকে আবার জেলে নেওয়ার হুমকি দিচ্ছেন। জেল-জুলুমের ভয় দেখিয়ে বিএনপিকে জনগণের পক্ষে কথা বলা থেকে বিরত রাখা যাবে না।

বিএনপি থেকে নেতারা আওয়ামী লীগের সঙ্গে যোগাযোগ করছেন বলে ক্ষমতাসীন দলের নেতাদের বক্তব্যের প্রতিক্রিয়া জানতে চাইলে প্রিন্স বলেন, আওয়ামী লীগ এখন ডুবন্ত জাহাজ। ডুবন্ত জাহাজে কেউ উঠতে চায় না। নিজেদের ব্যর্থতা আড়াল করতে তাঁরা এসব কথা বলছেন।

লকডাউনের মধ্যে বিভিন্ন জেলায় দলের নেতাকর্মীদের পুলিশ গ্রেপ্তার করছে বলেও অভিযোগ করেন তিনি। লকডাউনের ফলে ক্ষতিগ্রস্ত গণপরিবহনের শ্রমিক, হকার, দোকান কর্মচারী, ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী, দিনমজুরসহ নিম্ন আয় ও কর্মহীন মানুষকে পর্যাপ্ত খাদ্য ও অর্থ সহায়তা দিতে বিএনপির পক্ষ থেকে তিনি সরকারের প্রতি জোর দাবি জানান।

সংবাদ সম্মেলনে অন্যদের মধ্যে দলের নেতা সালাম আজাদ, তাইফুল ইসলাম টিপু, বেলাল আহমেদ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।



সাতদিনের সেরা