kalerkantho

বুধবার । ১১ কার্তিক ১৪২৮। ২৭ অক্টোবর ২০২১। ১৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

কঠোর লকডাউনেও সক্রিয় কোয়ান্টামের দাফনসেবা

এ পর্যন্ত চার হাজারজনের শেষকৃত্য

নিজস্ব প্রতিবেদক   

৩ জুলাই, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



করোনায় মৃতদেহ দাফন বা সৎকারে স্বতঃস্ফূর্তভাবে সক্রিয় রয়েছে দেশের অন্যতম স্বেচ্ছাসেবী প্রতিষ্ঠান কোয়ান্টাম ফাউন্ডেশন। সারা দেশে কঠোর লকডাউনের প্রথম দিন বৃহস্পতিবারও রাত পর্যন্ত ঢাকায় ২০ জনের শেষবিদায়ে পাশে থেকেছে কোয়ান্টাম। আর করোনা মহামারি ছড়িয়ে পড়ার পর এ পর্যন্ত চার হাজারজনের শেষকৃত্য সম্পন্ন করেছে সংগঠনটি।

রাজধানীর কাকরাইলে কোয়ান্টাম দাফন কার্যক্রমের দায়িত্বশীল খন্দকার সজিবুল ইসলাম জানান, ধর্ম-বর্ণ-নির্বিশেষে শেষবিদায় জানাতে ২৪ ঘণ্টা কাজ করে যাচ্ছে কোয়ান্টামের হাজারো স্বেচ্ছাসেবী। লকডাউনের মধ্যেও রাজধানীসহ সারা দেশেই চলছে নিরলস মানবিক এই সেবা কার্যক্রম। করোনা সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ার পর গত বছরের এপ্রিল থেকে করোনা বা করোনা উপসর্গে মৃত ব্যক্তিদের শেষকৃত্যে অংশ নিচ্ছে কোয়ান্টাম ফাউন্ডেশনের স্বেচ্ছাসেবীরা। সব মিলিয়ে ঢাকাতে দাফন সেবায় জড়িত রয়েছে দুই শতাধিক স্বেচ্ছাসেবক। এসব স্বেচ্ছাকর্মীর কেউ শিক্ষার্থী, কেউ শিক্ষক, কেউ সাংবাদিক, কেউ ব্যবসায়ী কেউ আবার আইনজীবী।

খন্দকার সজিবুল ইসলাম বলেন, ‘এ পর্যন্ত যে প্রায় চার হাজার মরদেহের শেষকৃত্য সম্পন্ন করেছে আমাদের কর্মীরা তার মধ্যে রয়েছে মুসলিম তিন হাজার ৪২৮ জন, সনাতন ধর্মের ৪৮৭ জন, অন্যান্য ধর্মের ৫৬ জন।’

নানা পেশার নানা বয়সী স্বেচ্ছাসেবকদের তালিকায় রয়েছে আলাদা নারী স্বেচ্ছাসেবক দল। মুসলিম ছাড়াও অন্যান্য ধর্মাবলম্বীদের জন্যে রয়েছে আলাদা ব্যবস্থা। মানবিক মূল্যবোধ নিয়ে এগিয়ে আসে প্রতিষ্ঠানটির এই স্বেচ্ছাসেবক দল। স্বাস্থ্যবিধি মেনে যথাযথ ধর্মীয় রীতি মেনে চলছে কোয়ান্টামের এই সেবা। হাসপাতাল ছাড়াও কাকরাইলে নিজস্ব গোসলখানায় ভাইরাসমুক্ত করে যথাযথভাবে শেষ সজ্জায় সাজিয়ে প্রয়োজনে কবরস্থান বা সমাধি পর্যন্ত চলছে এই সেবা।