kalerkantho

শুক্রবার । ২ আশ্বিন ১৪২৮। ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১। ৯ সফর ১৪৪৩

‘অবৈধ’ নিয়োগের বৈধতা চেয়ে এবার অবস্থান কর্মসূচি

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি   

২৪ জুন, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



‘অবৈধ’ নিয়োগের বৈধতা চেয়ে এবার অবস্থান কর্মসূচি

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে সম্প্রতি ‘অবৈধ’ নিয়োগে চাকরিপ্রাপ্ত ছাত্রলীগ ও যুবলীগের সাবেক ও বর্তমান নেতাকর্মীরা পদায়নের দাবিতে অনির্দিষ্টকালের জন্য অবস্থান কর্মসূচি শুরু করেছেন। গত মঙ্গলবার সন্ধ্যায় উপাচার্য ভবনের সামনে শুরু হওয়া এই আন্দোলন গতকাল বুধবার বিকেলেও চলছিল। আন্দোলনকারীরা বলছেন, তাঁদের চাকরিতে পদায়ন না করা পর্যন্ত আন্দোলন চলবে। তবে প্রশাসন বলছে, এ বিষয়ে তাদের কোনো এখতিয়ার নেই।

বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য আবদুস সোবহান গত ৬ মে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করে ১৩৮ জনকে নিয়োগ দেন। মন্ত্রণালয় সেদিনই এই নিয়োগ ‘অবৈধ’ ঘোষণা করে তাঁদের যোগদানের ব্যাপারে স্থগিতাদেশ দেয়। এর পর থেকেই চাকরিতে যোগদানের দাবিতে ক্যাম্পাসে থেমে থেমে আন্দোলন করে আসছিলেন নিয়োগপ্রাপ্তরা।

ক্যাম্পাস সূত্রে জানা গেছে, মঙ্গলবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত উপাচার্য অধ্যাপক আনন্দ কুমার সাহার সভাপতিত্বে একটি সিন্ডিকেট সভা অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল। তবে সভা শুরুর কিছুক্ষণ আগে ‘নিয়োগপ্রাপ্ত’ ছাত্রলীগ ও যুবলীগের অর্ধশতাধিক সাবেক ও বর্তমান নেতাকর্মী উপাচার্যের বাসভবনের সামনে অবস্থান নেন। আন্দোলনের মুখে রাত সাড়ে ৮টায় সভা স্থগিত ঘোষণা করে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। সূত্র জানায়, আন্দোলনকারীদের একাংশ মঙ্গলবার রাতভর সেখানেই অবস্থান করেছিল। গতকাল বিকেলে প্রতিবেদন লেখার সময়ও তাদের কর্মসূচি চলছিল।

‘নিয়োগপ্রাপ্ত’ রাবি ছাত্রলীগের সহসভাপতি মাহাফুজ আল আমিন বলেন, ‘আমাদের একটাই দাবি, আমরা চাকরিতে যোগদান করতে চাই। আমরা এখানে অবস্থান নিয়েছি, যোগদানের ঘোষণা না দেওয়া পর্যন্ত আমাদের অবস্থান থেকে নড়ব না।’

ভারপ্রাপ্ত উপাচার্য আনন্দ কুমার সাহা বলেন, ‘আন্দোলনকারী এবং স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতাদের সঙ্গে আলোচনার পরিপ্রেক্ষিতে সিদ্ধান্ত হয়েছিল আমরা ফিন্যান্স কমিটির সভা এবং সিন্ডিকেট সভা করতে পারব। তারা কোনো বাধা দেবে না। তবে তারা অবস্থান কর্মসূচি শুরু করায় সভা স্থগিত করতে বাধ্য হয়েছি।’ সভায় ওই নিয়োগসংক্রান্ত কোনো এজেন্ডাও ছিল না বলেও জানান তিনি।



সাতদিনের সেরা