kalerkantho

মঙ্গলবার । ৩ কার্তিক ১৪২৮। ১৯ অক্টোবর ২০২১। ১১ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

৮৪টি প্রতিষ্ঠানের হিসাব জব্দ ও বিআইএন বন্ধ

ফারজানা লাবনী   

২২ জুন, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



দেশের ৮৪টি অসাধু ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠান কম দামে কাঁচামাল কিনে কাগজে-কলমে কয়েক গুণ বেশি দাম দেখিয়ে অর্থ পাচার করেছে। শুধু অর্থ পাচার করেই থেমে থাকেনি প্রতিষ্ঠানগুলো, তারা প্রয়োজনের চেয়ে বেশি পণ্য আমদানি করে খোলাবাজারে বিক্রি করে আর্থিক অনিয়ম করেছে।

জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) তদন্তে এই ৮৪টি প্রতিষ্ঠান চিহ্নিত হয়েছে। এসব প্রতিষ্ঠানের অনিয়মের আর্থিক পরিমাণ ৩৬৫ কোটি টাকা।

সম্প্রতি এসব প্রতিষ্ঠানের হিসাব জব্দ ও ব্যবসা চিহ্নিতকরণ নম্বর বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। প্রতিষ্ঠানগুলোর মালিক কারা এবং তাদের আয়-ব্যয়, স্থাবর-অস্থাবর সম্পদের হিসাব খতিয়ে দেখা হবে বলে এনবিআর সূত্র জানিয়েছে।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, এই ৮৪টি প্রতিষ্ঠান বন্ড সুবিধার আওতায় পণ্য আমদানি-রপ্তানি করে। বন্ড সুবিধা পাওয়ায় এসব প্রতিষ্ঠানকে পণ্য উৎপাদনে ব্যবহৃত কাঁচামাল আমদানিতে শুল্ক-কর খাতে একটি টাকাও সরকারি কোষাগারে জমা দিতে হয় না। আর্থিক অনিয়ম করায় এরই মধ্যে এসব প্রতিষ্ঠানের বন্ড সুবিধা স্থগিত করা হয়েছে। হিসাব জব্দ ও ব্যবসা চিহ্নিতকরণ নম্বর (বিআইএন) বন্ধ থাকায় পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত তারা আমদানি-রপ্তানি সংক্রান্ত কোনো কাজ করতে পরবে না।

শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ড. আবদুর রউফ কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘বন্ড সুবিধার আওতায় কিছু অসাধু ব্যবসায়ী মিথ্যা তথ্য দিয়ে কারখানায় ব্যবহারের কথা বলে শুল্কমুক্ত কাঁচামাল আমদানি করে একদিকে অর্থপাচারের মতো জঘন্য কাজ করেছে, অন্যদিকে হিসাবের চেয়ে বেশি আমদানি করে খোলাবাজারে বিক্রি করে দিয়েছে। এসব প্রতিষ্ঠানের দুর্নীতি বন্ধ করতে অভিযান চালমান।’

শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদপ্তর সূত্র জানায়, ময়মনসিংহের আলী অ্যান্ড সন্স লিমিটেড (লাইসেন্স নম্বর ১১/কাস্ট/এসবিডবিউ/৯১), খিলগাঁও ৩১৬/পশ্চিম গোড়ান এফএস প্যাকেজিং ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড (৪৮৩/কাস্ট/এসবিডব্লিউ/২০০০), চট্টগ্রামের খুলশীতে অবস্থিত এএ এক্সেসরিজ ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড, গাজীপুর শেরপুরের মাওনায় অবস্থিত ইশনা লিমিটেড (১০৬/কাস্ট-বিডউ/৯৬), চট্টগ্রামের ৫/৬ ফৌজদারহাটের বেঙ্গল সিনথেটিক ফাইবার লিমিটেড, উত্তরার আশকোনার ২৪৭ ডানা প্লাজার হেলিক্স গার্মেন্টস লিমিটেড (৮১৭/কাস্ট/এসবিডব্লিউ/২০০৭), চট্টগ্রামের ১৪৬৭ গাউসিয়ায় অবস্থিত চট্টগ্রাম ড্রেসেস (এরিয়া ১৩), নারায়ণগঞ্জের ৬৫/১ ফাস্ট নিটওয়্যার (৪৭৯/কাস্ট-পিডব্লিউ বি/৯৬), নরায়ণগঞ্জ ফতুল্লায় অবস্থিত গোমতি প্যাকেজিং ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডসহ (২৪২/কাস্ট/পিডব্লিউ/২০০৪) ৮৪ প্রতিষ্ঠানের হিসাব জব্দ ও ব্যবসা চিহ্নিতকরণ নম্বর বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।

এনবিআরের শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদপ্তর থেকে দেশে বিভিন্ন কারখানায় অধিক ব্যবহৃত আমদানীকৃত কাঁচামালের তালিকা সংগ্রহ করা হয়। এসব কাঁচামালের দামের তালিকাও জোগাড় করে অধিদপ্তর। এসব কাঁচামাল বেশি আমদানি করেছে এমন প্রায় শতাধিক প্রতিষ্ঠানের তালিকা করা হয়েছে। গত এক বছরে এসব প্রতিষ্ঠান কী পরিমাণ পণ্য কত দামে আমদানি করেছে, আমদানীকৃত কাঁচামালের কতটা ব্যবহার করে কী পরিমাণ পণ্য উৎপাদন করা হয়েছে, উৎপাদিত পণ্য কোন দেশে কী পরিমাণ রপ্তানি করা হয়েছে, এসব প্রতিষ্ঠানের ব্যাংকিং লেনদেন কেমন—সব তথ্য সংগ্রহ করে তদন্ত করা হয়।



সাতদিনের সেরা