kalerkantho

শুক্রবার । ২ আশ্বিন ১৪২৮। ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১। ৯ সফর ১৪৪৩

ছাত্রদলের মিছিলে অতর্কিতে হামলা

১০ জনকে আটকের অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৮ জুন, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



রাজধানীর নয়াপল্টনে ছাত্রদলের মিছিলে পুলিশের অতর্কিত হামলার অভিযোগ করেছেন সংগঠনের নেতাকর্মীরা। গতকাল বৃহস্পতিবার বিকেলে নয়াপল্টন বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে এ ঘটনা ঘটে।

ইট-পাটকেল নিক্ষেপে পুলিশসহ একাধিক ছাত্রদল নেতাকর্মী আহত হয়েছেন। ১০ জনকে আটক করা হয়েছে বলে ছাত্রদল নেতাদের অভিযোগ।

ছাত্রদলের নেতাকর্মীদের অভিযোগ, সকালে ময়মনসিংহে ছাত্রদলের বিভাগীয় আলোচনাসভায় পুলিশ অতর্কিত হামলায় চালায়। এর প্রতিবাদে ঢাকায় মিছিল বের করলে সেখানেও পুলিশ হামলা করে। ছাত্রদলের সাবেক সাধারণ সম্পাদক হাবিবুর রশিদ হাবিব ও বর্তমান সাধারণ সম্পাদক ইকবাল হোসেন শ্যামলসহ সংগঠনের বেশ কয়েকজন আহত হয়েছেন।

ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় সহসভাপতি আশরাফুল আলম ফকির লিংকন সাংবাদিকদের বলেন, নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে থেকে দুই শতাধিক নেতাকর্মী প্রতিবাদ মিছিল বের করলে পুলিশ পেছন থেকে অতর্কিতে হামলা চালায়। এ ঘটনায় কয়েকজন নেতাকর্মী আহত হন।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, মিছিলে পুলিশ বাধা দিলে ছাত্রদলের নেতাকর্মীরা বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এবং আশপাশের গলিতে অবস্থান নেন। পরে তাঁরা লাঠি নিয়ে কার্যালয়ের সামনে মিছিল করেন। তখন আর পুলিশ বাধা দেয়নি। সন্ধ্যার আগে তাঁরা এলাকা ছেড়ে যান। কেউ কেউ কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে অবস্থান নেন। সন্ধ্যার পর থেকে পুলিশ ও আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা কার্যালয়ের চারপাশে অবস্থান নিলে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে।

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলেন, সরকার কর্তৃত্ববাদী শাসন কায়েম করে দেশকে পুলিশি রাষ্ট্রে পরিণত করেছে। ময়মনসিংহের শম্ভুগঞ্জে পুলিশের হামলায় ছাত্রদলের ১০ জন গুলিবিদ্ধ হয়েছে। অনেককে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এর প্রতিবাদে নয়াপল্টনে ছাত্রদলের প্রতিবাদ মিছিলেও পুলিশ হামলা চালায়। বিএনপি কার্যালয় অবরুদ্ধ করে রাখে। অন্তত ১০ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। ময়মনসিংহ ও ঢাকায় গ্রেপ্তার নেতাকর্মীদের মুক্তিসহ হয়রানি বন্ধের দাবি জানান তিনি।



সাতদিনের সেরা