kalerkantho

রবিবার । ১৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৮। ২৮ নভেম্বর ২০২১। ২২ রবিউস সানি ১৪৪৩

জনসনের এক ডোজের টিকার অনুমোদন

স্বাস্থ্য অধিদপ্তর সরাসরি আনবে এই টিকা

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৬ জুন, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



দেশে জরুরি ব্যবহারের জন্য এবার অনুমোদন পেল বেলজিয়ামভিত্তিক জনসন অ্যান্ড জনসন গ্রুপের জনসন-ক্লিগ ইন্টারন্যাশনালের করোনার এক ডোজের টিকা। টিকাসংক্রান্ত জাতীয় কারিগরি কমিটির সুপারিশ সাপেক্ষে গতকাল মঙ্গলবার ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তরের পক্ষ থেকে অনুমোদন দেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন ওই অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মেজর জেনারেল মো. মাহবুবুর রহমান। আর এই প্রথম সরকারের কোনো প্রতিষ্ঠান হিসেবে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর (মা ও শিশু শাখা) সরাসরি ওই টিকা আনতে যাচ্ছে। স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের আবেদনের ভিত্তিতে ওই অনুমোদন দেওয়া হয় বলে ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তরের মহাপরিচালকের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে।

এটি নিয়ে দেশে ছয়টি টিকা ব্যবহারের অনুমতি মিলল। এক ডোজের এই টিকাটি ১৮ বছর এবং এর ওপরের যেকোনো বয়সী মানুষকে দেওয়া যাবে। যা ২-৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রায় সংরক্ষণযোগ্য।

এর আগে গত ৭ জানুয়ারি ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তর প্রথম অনুমোদন দেয় অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার কোভিশিল্ড টিকা, ২৭ এপ্রিল অনুমোদন দেয় রাশিয়ার স্পুিনক ভি, ২৯ এপ্রিল সিনোফার্মের টিকা, ২৭ মে ফাইজারের টিকা এবং ৩ জুন চীনের সিনোভ্যাক লাইফ সায়েন্স কম্পানির উৎপাদিত করোনাভ্যাক টিকার। এর মধ্যে এই প্রথম সরকার নিজেই কোনো টিকা আনার অনুমোদন নিল। অন্যগুলোর সঙ্গে কোনো না কোনোভাবে বেসরকারি সংশ্লিষ্টতা রয়েছে বলে জানায় ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তর সূত্র। ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তর জানায়, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মা ও শিশু বিভাগের আবেদেনের পরিপ্রেক্ষিতে জনসনের টিকাটির ডোসিয়ার (ক্লিনিক্যাল ট্রায়াল পার্ট, সিএমসি পার্ট এবং রেগুলেটরি স্ট্যাটাস) মূল্যায়ন করে করোনা চিকিৎসার জন্য পাবলিক হেলথ ইমার্জেন্সির ক্ষেত্রে ওষুধ, ইনভেস্টিগেশনাল ড্রাগ, ভ্যাকসিন এবং মেডিক্যাল ডিভাইস মূল্যায়নের জন্য গঠিত কমিটির সুপারিশের ভিত্তিতে ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তর এ অনুমোদন দেয়।



সাতদিনের সেরা