kalerkantho

রবিবার । ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৮। ৫ ডিসেম্বর ২০২১। ২৯ রবিউস সানি ১৪৪৩

স্বামীকে দায়ী করে ‘সুইসাইড নোট’

সংসদ সচিবালয় কোয়ার্টারে ছাত্রলীগ নেত্রী নুসরাতের লাশ

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৪ জুন, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ছাত্রলীগ নেত্রী নুসরাত জাহানের লাশ উদ্ধারের সময় তাঁর কক্ষ থেকে একটি চিরকুটও উদ্ধার করেছে পুলিশ। ওই চিরকুটে নিজের মৃত্যুর জন্য স্বামী মামুন মিল্লাতকে দায়ী করেছেন নুসরাত।

গত শনিবার রাজধানীর আগারগাঁওয়ে সংসদ সচিবালয় কোয়ার্টার থেকে নুসরাতের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধারের পর তদন্তে এরই মধ্যে অনেক গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পাওয়ার দাবি করেছে পুলিশ।

প্রাথমিক তদন্ত শেষে পুলিশের ভাষ্য, লাশ উদ্ধারের সময় নুসরাতের ঘর থেকে এক পৃষ্ঠার একটি ‘সুইসাইড নোট’ উদ্ধার করা হয়েছে। ওই নোটের লেখা নুসরাতের বলে মনে হচ্ছে। নোটে মৃত্যুর জন্য স্বামীকে দায়ী করেছেন নুসরাত।

ওই নোটটি আলামত হিসেবে জব্দ করা হয়েছে জানিয়ে শেরেবাংলানগর থানার ওসি জানে আলম মুনশি বলেন, ওই নারীর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধারের সময় তাঁর কক্ষ থেকে পাওয়া একটি ‘সুইসাইড নোট’ পড়ে মনে হয়েছে, নুসরাত জাহান আত্মহত্যা করতে পারেন। তবে তাঁর মৃত্যুর সঠিক তথ্য জানতে তদন্ত চলছে। নুসরাতের মৃত্যুর নেপথ্যে মামুন দায়ী বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। মামুন পলাতক রয়েছেন।

মৃতের স্বজনদের বরাত দিয়ে ওসি জানে আলম মুনশি বলেন, বিয়ের আগে থেকে নুসরাত-মামুনের সম্পর্ক ছিল। ২০১৯ সালে এ জুটি বিয়ে করেন। এ দম্পতি আগারগাঁওয়ের সংসদ সচিবালয়ের বি ২ নম্বর কোয়ার্টারে সাবলেটে থাকতেন। মামুন নিজেকে ৩৮তম বিসিএসের মাধ্যমে নিয়োগ পাওয়া পুলিশ কর্মকর্তা পরিচয় দিয়ে নুসরাতকে বিয়ে করেছিলেন। কিন্তু পরে নুসরাত জানতে পারেন, মামুন পুলিশ কর্মকর্তা নন। এ নিয়ে তাঁদের মধ্যে প্রায়ই ঝগড়া হতো।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, খাগড়াছড়ির মেয়ে নুসরাত খাগড়াছড়ি সরকারি কলেজে পড়ার সময় ছাত্রলীগ করতেন। তাঁর আসল নাম নিবেদিতা রোজারিও।



সাতদিনের সেরা