kalerkantho

রবিবার । ১৭ শ্রাবণ ১৪২৮। ১ আগস্ট ২০২১। ২১ জিলহজ ১৪৪২

সংক্ষিপ্ত

স্ত্রীকে ‘জীবন্ত মাটিচাপা’ সন্তান নিখোঁজ

বিরামপুর (দিনাজপুর) প্রতিনিধি   

১২ জুন, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



স্ত্রীকে মাটিচাপা দিয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে স্বামীর বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় স্বামী আব্দুর রউফকে (৪০) বৃহস্পতিবার গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। স্ত্রীর নাম হাসিনা বেগম ওরফে সুমি (৩২)। হাসিনা ওই ব্যক্তির চতুর্থ স্ত্রী। এ ঘটনায় একজন গ্রাম পুলিশ হত্যা মামলা করেছেন। পুলিশ সূত্র জানায়. দিনাজপুরের বিরামপুর উপজেলার নয়ানি খসালপুর দরগাপাড়া ফরেস্টের ২৭ নম্বর দাগের বাগানের পাশে গাছ লাগানোর গর্ত খুঁড়তে গিয়ে বন বিভাগের কর্মচারীরা এক নারীর মরদেহ দেখতে পান। পরে পুলিশ গিয়ে মরদেহ উদ্ধার করে হাসিনাকে শনাক্ত করে। ঘটনায় জড়িত সন্দেহে বৃহস্পতিবার রউফকে আটক করে পুলিশ। গতকাল শুক্রবার আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন তিনি। পুলিশের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে রউফ জানান, বনের পাশে একটি জমির ফসলের মাঠের মাঝে অবস্থিত একটি ঘরে রউফ থাকতেন। গত শনিবার রাতে গোপনে সেখানে আসেন হাসিনা। অন্য স্ত্রীদের মতো হাসিনাও রউফের বাড়িতে থাকতে চান। এতে ক্ষুব্ধ হন স্বামী। কথা-কাটাকাটির এক পর্যায়ে স্ত্রীর গলা চেপে ধরেন তিনি। অজ্ঞান অবস্থায় মুখে আগুন দেওয়া হয়। পরে কাঁধে করে প্রায় এক কিলোমিটার দূরে নিয়ে মাটিচাপা দেন রউফ। এদিকে, রউফ দাবি করেছেন শিশুসন্তান সম্পর্কে তিনি কিছুই জানেন না। তাঁর স্ত্রী অন্য কারো কাছে সন্তানকে দত্তক দিয়েছেন। কার কাছে দত্তক দিয়েছেন সে সম্পর্কে তাঁর জানা নেই। ঘটনার ১৩ দিন আগে এই কন্যাসন্তানের জন্ম হয়। হাসিনা জেলার নবাবগঞ্জ উপজেলার খটখটিয়া কৃষ্ট চাঁদপুর গ্রামের প্রয়াত মজিবর রহমানের মেয়ে।



সাতদিনের সেরা