kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ২১ শ্রাবণ ১৪২৮। ৫ আগস্ট ২০২১। ২৫ জিলহজ ১৪৪২

ভারতে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ

তরুণীর করা মামলায় দুজনের দায় স্বীকার

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১০ জুন, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ভারতে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের শিকার এক তরুণীর করা মামলায় দুই নারী পাচারকারী আদালতে দায় স্বীকার করে জবানবন্দি দিয়েছেন। গতকাল বুধবার ঢাকা মহানগর হাকিম দেবব্রত বিশ্বাসের আদালত তাঁদের জবানবন্দি গ্রহণ করেন। আসামিরা হলেন মেহেদি হাসান বাবুল ও মহিউদ্দিন।

এদিন রিমান্ড শেষে তিন আসামিকে আদালতে হাজির করা হয়। এ সময় আসামি মেহেদি হাসান ও মহিউদ্দিন স্বেচ্ছায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিতে সম্মত হলে ১৬৪ ধারায় তাঁদের জবানবন্দি রেকর্ড করার আবেদন করেন তদন্ত কর্মকর্তা। পরে আদালত তাঁদের জবানবন্দি রেকর্ড করে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।

ওই তরুণী দেশে ফিরে গত ১ জুন হাতিরঝিল থানায় মানবপাচার ও পর্নোগ্রাফি আইনে মামলা করেন। ওই মামলায় তিনজনকে সাতক্ষীরা থেকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। এরপর গত ৩ জুন তিন আসামির পাঁচ দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালত। এ ছাড়া এই মামলায় গত সোমবার দুপুরে সাতক্ষীরা জেলার সীমান্তবর্তী এলাকা থেকে আমিরুল ইসলাম ও আবদুস সালাম মোল্লাকে গ্রেপ্তার করা হয়। গত মঙ্গলবার আদালত তাঁদের পাঁচ দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

মামলা সূত্রে জানা যায়, ভারতে পাচারের পর তরুণীটিকে বেঙ্গালুরুর আনন্দপুর এলাকায় পর্যায়ক্রমে কয়েকটি বাসায় রাখা হয়। বাসাগুলোতে হাতিরঝিল এলাকার আরো কয়েকজন তরুণী ও কিশোরীর সঙ্গে দেখা হয় ওই তরুণীর। তাদের মধ্যে সম্প্রতি ভাইরাল হওয়া ভিডিওর নির্যাতিত তরুণীও ছিলেন।



সাতদিনের সেরা