kalerkantho

রবিবার । ৮ কার্তিক ১৪২৮। ২৪ অক্টোবর ২০২১। ১৬ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

ধরাছোঁয়ার বাইরে পাট সিন্ডিকেটের প্রধান

সংসদীয় কমিটির হস্তক্ষেপ কামনা

নিজস্ব প্রতিবেদক   

৯ জুন, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



একের পর এক মামলা হলেও ধরাছোঁয়ার বাইরে রয়েছেন পাট সিন্ডিকেটের প্রধান মৃধা মনিরুজ্জামান। তিনি প্রতারণা-জালিয়াতির মাধ্যমে নামে-বেনামে দেশ-বিদেশে গড়ে তুলেছেন অঢেল সম্পদ। সর্বশেষ প্রতারণার মাধ্যমে অর্ধশত কোটি টাকা আত্মসাৎ ও প্রাণনাশের হুমকির অভিযোগে ভুক্তভোগীরা রাজধানীর বনানী থানায় মামলা করলেও তিনি অর্থের জোরে গ্রেপ্তার এড়িয়ে চলছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। এ বিষয়ে সংসদীয় কমিটির হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন ভুক্তভোগীরা।

লিখিত অভিযোগে বলা হয়েছে, মনিরুজ্জামানের দুর্নীতি-অনিয়মের বিরুদ্ধে তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সময় থেকেই কাজ শুরু করে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। তাঁর কাছে সম্পদের হিসাব চাওয়া হয়। ২০০২ সাল থেকে ২০০৯ সাল পর্যন্ত আয়কর রিটার্নের একটি প্রতিবেদন তিনি দুদকে জমা দেন। তা পর্যালোচনা করে দুদক ৯৮ লাখ টাকা অবৈধ সম্পদের প্রমাণ পায়। এরপর দুদকের ফরিদপুর সমন্বিত কার্যালয়ের পক্ষ থেকে ২০১৯ সালের ২৭ মে দুর্নীতি দমন প্রতিরোধ আইনে একটি মামলা দায়ের করা হয়। ওই বছরের ৩০ জুলাই কারাগারে যান মনিরুজ্জামান। কিন্তু কয়েক মাস পর জামিনে কারাগার থেকে বেরিয়ে আসেন।

অভিযোগে বলা হয়েছে, বিগত চারদলীয় জোট সরকারের আমলে কয়েকজন বন্ধুকে পার্টনার নিয়ে রাজধানীর আরামবাগে আনন্দ প্রিন্টার্স নামের একটি প্রতিষ্ঠান গড়ে তোলেন। এরপর প্রতিষ্ঠান থেকে নানাভাবে অর্থ তছরুপ শুরু করলে পার্টনাররা নিজেদের গুটিয়ে নেন। এমনি কৌশলে প্রাইড প্যাকার্স, দেশ পেপার অ্যান্ড প্যাকেজিং, প্রাইড জুটমিল ইন্ডাস্ট্রিজ ও অ্যাডভান্স সোয়েটার নামে আরো চারটি প্রতিষ্ঠানের মালিক বনে যান। এরপর তত্ত্বাবধায়ক সরকারের আমলে গাঢাকা দিলেও ২০০৯ সালে আওয়ামী লীগ সরকার ক্ষমতায় এলে  তিন-চারজন পার্টনার নিয়ে গোল্ডেন জুটমিল গড়ে তোলেন।

ভুক্তভোগীদের এই অভিযোগ নিয়ে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় কমিটির বৈঠকে আলোচনা হবে বলে জানিয়েছেন কমিটির সভাপতি মো. শামসুল হক টুকু। তিনি বলেন, সরকার অনিয়ম, দুর্নীতি ও সন্ত্রাসী কার্যকলাপের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স নীতি অবলম্বন করেছে। ফলে শুধু মৃধা মনিরুজ্জামান নয়, অপকর্মের সঙ্গে জড়িত সবাইকে আইনের আওতায় আনতে সংসদীয় কমিটি ভূমিকা রাখবে।



সাতদিনের সেরা