kalerkantho

শুক্রবার । ২ আশ্বিন ১৪২৮। ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১। ৯ সফর ১৪৪৩

আহা মানবাধিকার!

♦ মিয়ানমারে ২৪ বিলিয়ন ডলার বিনিয়োগ করেছে ৯ পশ্চিমা ব্যাংক
♦ বহুজাতিক অনেক কম্পানি সামরিক জান্তার ব্যবসার অংশীদার

কূটনৈতিক প্রতিবেদক   

৭ জুন, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



রোহিঙ্গা ইস্যু থেকে শুরু করে মিয়ানমারের মানবাধিকার পরিস্থিতি নিয়ে বেশ সরব পশ্চিমা দেশগুলো। বাংলাদেশে আশ্রিত রোহিঙ্গাদের জন্য তারা মানবিক সহায়তা দেয়। অন্যদিকে মিয়ানমারের সঙ্গে ব্যবসা-বাণিজ্যও করে। সম্প্রতি ফাঁস হওয়া এক তথ্যে জানা গেছে, আন্তর্জাতিক ৯টি ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান মিয়ানমারের সামরিক জান্তা ও তাদের সহযোগীদের সঙ্গে সম্পৃক্ত ১৮টি কম্পানিতে ২৪ বিলিয়ন ডলারের বেশি বিনিয়োগ করেছে। ওই ব্যাংকগুলো হলো—জাপানের মিতসুবিসি ইউএফসি ফিন্যানশিয়াল গ্রুপ (এমইউএফজি), জাপানের সুমিতোমো মিতসুই ফিন্যানশিয়াল গ্রুপ (এমইউএফজি), যুক্তরাষ্ট্রের বহুজাতিক ব্যাংকিং ও হোল্ডিং কম্পানি জেপিমরগান চেস, সুইস বহুজাতিক বিনিয়োগ ব্যাংক ইউবিএস, সুইজারল্যান্ডভিত্তিক বিনিয়োগ ব্যাংক ক্রেডিট সুইস, যুক্তরাষ্ট্রের মর্গান স্ট্যানলি, ব্যাংক অব আমেরিকা, ওয়েলস ফার্গো ও ফ্রান্সভিত্তিক বিএনপি পরিবাস। ওই প্রতিষ্ঠানগুলো পশ্চিমা দেশের বা পশ্চিমা রাজনৈতিক বলয়ের।

গত ১ ফেব্রুয়ারি মিয়ানমারে সামরিক অভ্যুত্থানের পর থেকে সেখানে মানবাধিকার পরিস্থিতি নিয়ে পশ্চিমা দেশগুলো নানা ব্যবস্থা নেওয়ার কথা বলে আসছে। যুক্তরাষ্ট্র, ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ), কানাডা, যুক্তরাজ্য মিয়ানমারের সামরিক জান্তা ও তাদের সহযোগীদের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে। কিন্তু কার্যত পশ্চিমা অনেক প্রতিষ্ঠান মিয়ানমারের সামরিক জান্তার সঙ্গে ব্যবসা-বাণিজ্য করছে।

এ প্রসঙ্গে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন গতকাল রবিবার বলেন, ৯টি বিদেশি ব্যাংক মিয়ানমারকে ২৪ বিলিয়ন ডলার গ্যারান্টি দিয়েছে। ওই দেশটিতে যখন মানবাধিকার লঙ্ঘন হচ্ছে তখন এই ব্যাংকগুলো টাকা দিচ্ছে। যেসব দেশ মানবাধিকার লঙ্ঘনের বড় বড় কথা বলে তারা মানবাধিকার লঙ্ঘন যারা করছে তাদের টাকা দিচ্ছে। এটি তো কোনোভাবেই গ্রহণযোগ্য না।



সাতদিনের সেরা