kalerkantho

বুধবার । ১১ কার্তিক ১৪২৮। ২৭ অক্টোবর ২০২১। ১৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

নিউ বসুন্ধরা রিয়েল এস্টেটের নামে প্রতারণা

জামিন বাতিলের আবেদন শুনবেন আপিল বিভাগ

নিজস্ব প্রতিবেদক   

৩১ মে, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



জমি কেনাবেচার নামে খুলনা ও বাগেরহাট এলাকার বিভিন্ন ব্যক্তির কাছ থেকে নেওয়া ১১০ কোটি টাকা পাচারের অভিযোগে করা মামলায় নিউ বসুন্ধরা রিয়েল এস্টেট লিমিটেড নামের একটি প্রতিষ্ঠানের চেয়ারম্যান আনিসুর রহমান এবং ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) আবদুল মান্নান তালুকদারের জামিন বাতিল চেয়ে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) করা পৃথক দুটি আবেদন একসঙ্গে শুনবেন আপিল বিভাগ।

প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বে আপিল বিভাগ গতকাল রবিবার এ আদেশ দেন। দুদকের পক্ষে আইনজীবী ছিলেন অ্যাডভোকেট খুরশীদ আলম খান। অপর পক্ষে ছিলেন ব্যারিস্টার রুহুল কুদ্দুস কাজল।

দুদকের আবেদনে আপিল বিভাগ গত ২৫ এপ্রিল এক আদেশে নিউ বসুন্ধরা রিয়েল এস্টেট লিমিটেডের চেয়ারম্যান আনিসুর রহমানের জামিন স্থগিত করে দুই সপ্তাহের মধ্যে আত্মসমর্পণের নির্দেশ দেন। এই নির্দেশে আনিসুর রহমান আত্মসমর্পণ করেন। এ অবস্থায় আনিসুর রহমানের জামিন বাতিল চেয়ে দুদকের করা আবেদনের ওপর গতকাল আপিল বিভাগে শুনানির জন্য দিন ধার্য ছিল। শুনানিকালে আনিসুর রহমানের আইনজীবী ব্যারিস্টার রুহুল কুদ্দুস কাজল আদালতকে বলেন, কম্পানির এমডি আবদুল মান্নান তালুকদারই সব। তাঁকে গত বছর হাইকোর্ট জামিন দিয়েছেন। সেই জামিন বহাল রয়েছে। তিনি জামিনে মুক্তি পেয়েছেন।

এ সময় দুদকের আইনজীবী বলেন, আবদুল মান্নান ছিলেন একজন সরকারি কর্মচারী। তাঁকে হাইকোর্টের দেওয়া জামিনের বিরুদ্ধে দুদক এরই মধ্যে আবেদন করেছে। এ আবেদন আপিল বিভাগেই শুনানির জন্য রয়েছে। এ সময় আদালত উভয় আবেদনের ওপর একসঙ্গে শুনানির আদেশ দেন।

নিউ বসুন্ধরা রিয়েল এস্টেট লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আবদুল মান্নান ও চেয়ারম্যান আনিসুরের বিরুদ্ধে ১১০ কোটি ৩১ লাখ ৯ হাজার ১৩৫ টাকা ৫৮ পয়সা আত্মসাতের মাধ্যমে পাচারের অভিযোগে বাগেরহাট সদর মডেল থানায় ২০১৯ সালের ৩০ মে মামলা হয়। আবদুল মান্নান গতবছর ৫ মে এবং আনিসুর রহমান ৮ অক্টোবর হাইকোর্ট থেকে জামিন নিয়ে কারাগার থেকে মুক্তি পান। উভয়ের জামিন বাতিল চেয়ে দুদক আপিল বিভাগে আবেদন করে।

বাগেরহাট জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের চতুর্থ শ্রেণির কর্মচারী (এমএলএসএস) আবদুল মান্নান স্বেচ্ছায় অবসর নিয়ে ২০১০ সালে নিউ বসুন্ধরা রিয়েল এস্টেট লিমিটেড নামে একটি জমি কেনাবেচার প্রতিষ্ঠান গড়ে তোলেন।



সাতদিনের সেরা