kalerkantho

বুধবার । ৪ কার্তিক ১৪২৮। ২০ অক্টোবর ২০২১। ১২ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

শিক্ষক ছাত্র কর্মকর্তাসহ সড়কে নিহত ১৪

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

২৮ মে, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ৪ মিনিটে



ভোলা থেকে চরফ্যাশনগামী বিসমিল্লাহ পরিবহনের একটি বাস বিপরীত দিক থেকে আসা দুটি অটোরিকশাকে চাপা দিলে অটোরিকশা দুটির তিন যাত্রী নিহত ও পাঁচ যাত্রী আহত হয়েছেন। গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে ভোলা-চরফ্যাশন সড়কের ভোলা সদর উপজেলার ঘুইগারহাট এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। আরো সাত জেলায় সড়ক দুর্ঘটনায় প্রাণ গেছে সরকারি কর্মকর্তা, শিক্ষক, ছাত্র, আওয়ামী লীগ নেতাসহ ১১ জনের। গত বুধবার রাতে ও গতকাল এসব দুর্ঘটনা ঘটে।

ভোলায় নিহতরা হলেন সদর উপজেলার কমরদ্দি ইউনিয়নের সোহাগ (৩৫), উত্তর দিঘলদী ইউনিয়নের আজিজ (৩০) ও সিরাজ (২৫)। আজিজ ও সিরাজ তালগাছ থেকে পড়ে যাওয়া এক ব্যক্তিকে অটোরিকশায় করে ভোলা সদর হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার সময় দুর্ঘটনায় পড়েন। এতে উত্তেজিত লোকজন ভোলা-চরফ্যাশন সড়কে বাস চলাচল বন্ধ করে দেয়।

রাজধানীতে বুধবার রাত সাড়ে ১২টা থেকে গতকাল সকাল ৭টার মধ্যে তিনটি সড়ক দুর্ঘটনায় তিনজনের মৃত্যু হয়। নিহতরা হলেন কামরাঙ্গীরচরে শিশু রাহিম মিয়া (১০), ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কে শরিফা বেগম (৩২) ও যাত্রাবাড়ীতে মেয়র হানিফ ফ্লাইওভারে সুলতান রনি (২২)। রনি ঢাকা কলেজের সমাজবিজ্ঞান বিভাগের তৃতীয় বর্ষের ছাত্র এবং নরসিংদীর রায়পুরার আব্দুর রহিমের ছেলে। এ দুর্ঘটনায় রনির দুই বন্ধু আহত হন। রাহিম হবিগঞ্জের বানিয়াচং উপজেলার মোহন চানের ছেলে। মোহন তিন সন্তান নিয়ে কামরাঙ্গীর চর আলীনগর কবরস্থানের পেছনে ভাড়া থাকেন। আর শরিফা খিলক্ষেতে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের পরিচ্ছন্নতাকর্মী ও নেত্রকোনার পূর্বধলা উপজেলার আলিপুর গ্রামের মতি মিয়ার মেয়ে। তিনি স্বামী মো. রাসেল এবং দুই সন্তান নিয়ে খিলক্ষেত এলাকায় থাকতেন।

ঢাকার কেরানীগঞ্জের রামেরকান্দা এলাকায় কেরানীগঞ্জ-নবাবগঞ্জ-দোহার সড়কে গতকাল সকাল ও দুপুরে দুটি সড়ক দুর্ঘটনায় একজন নিহত ও ১০ জন আহত হয়। সকালে আহমেদ সাগর ক্যাফের সামনে থাকা একটি প্রাইভেট কারের চালক পরানকে (৩৫) পেছন থেকে দ্রুতগামী পিকআপ চাপা দিলে তাঁর মৃত্যু হয়। পরান ঢাকার নবাবগঞ্জের পানালিয়া গ্রামের বাসিন্দা। অন্যদিকে দুপুরে দিশারী পরিবহন ও জয়পাড়া পরিবহনের দুটি বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষে ১০ জন আহত হয়।

অফিসের গাড়িতে (পিকআপ) করে ঢাকায় যাওয়ার পথে সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুরে গতকাল সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত হন পাবনা বিএডিসির প্রকল্প পরিচালক সাজ্জাদ হোসেন ভুইয়া (৪৮)। গুরুতর আহত হন বিএডিসির তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী এ বি এম মাহমুদ হাসান খান ও গাড়িটির চালক সাইফুল ইসলাম। উপজেলার টেটিয়ারকান্দা এলাকায় পাবনা-ঢাকা মহাসড়কের যুগ্নিদহ সেতুর কাছে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার আলোকদিয়া বাজারে গতকাল সকালে ট্রাকের ধাক্কায় গুরুতর আহত হন স্কুল শিক্ষক রহমতউল্লাহ (৪৫)। দুপুরে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তাঁর মৃত্যু হয়েছে। তিনি আলোকদিয়া ইউনিয়নের মল্লিকপাড়ার শহর আলী মোল্লার ছেলে ও ভালাইপুর গ্রামের মান্নান খান উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক।

লক্ষ্মীপুরে পিকআপ ভ্যান ও মোটরসাইকেলের মুখোমুখি সংঘর্ষে আওয়ামী লীগ নেতা আবদুস সাত্তারের (৪৭) মৃত্যু হয়। তিনি গতকাল দুপুরে সদর উপজেলার ভবানীগঞ্জ চৌরাস্তা থেকে মোটরসাইকেলযোগে বাড়ি ফেরার সময় ভবানীগঞ্জ-তেওয়ারীগঞ্জ সড়কের স্টিলের পুল এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। আবদুস সাত্তার তেওয়ারীগঞ্জ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের বন ও পরিবেশবিষয়ক সম্পাদক, ৫ ওয়ার্ডের ওএমএসের ডিলার ও শহর কসবা গ্রামের বাসিন্দা।

হবিগঞ্জের মাধবপুরের মেহেরগাঁওয়ে ধর্মঘর-হরষপুর সড়কে বুধবার রাতে অটোরিকশার সঙ্গে মোটরসাইকেলের সংঘর্ষে মোটরসাইকেল আরোহীর মৃত্যু হয়। নিহত মো. এনামুল হক (৫৫) উপজেলার আহাম্মদপুর গ্রামের মৃত আবেদ আলীর ছেলে।

বগুড়ার আদমদীঘির ডহরপুর গ্রামে ছাতিয়ানগ্রাম-আদমদীঘি সড়কে গতকাল দুপুরে ট্রাকের চাকায় পিষ্ট হয়ে প্রাণ গেছে এক মোটরসাইকেল আরোহীর। নিহত আনন্দ পাহান (২০) উপজেলার ইসবপুর গ্রামের মুক্তা পাহানের ছেলে।

কুড়িগ্রামের রৌমারীর দাঁতভাঙ্গা ইউনিয়নের গাছবাড়ী নামক স্থানে গতকাল সকালে ট্রাক্টরের বালুর নিচে পড়ে চালক জাহিদুল ইসলাম (২৪) এবং মির্জাপাড়ায় বুধবার সকালে ট্রাক্টরের নিচে পড়ে পথচারী সাদেকুর রহমান (২৫) মারা যান। জাহিদুল উপজেলার পাখিউড়া ওয়াহেদনগর গ্রামের মহিবার রহমানের ছেলে। সাদেকুর চরঘুঘুমারী গ্রামের নুর হোসেনের ছেলে। মির্জাপাড়ার ঘটনায় তিনজন আহতও হয়।

(প্রত্যক্ষদর্শী, এলাকাবাসী, ফায়ার সার্ভিস, থানা পুলিশ ও হাসপাতাল সূত্রে প্রতিবেদনে তথ্য দিয়েছেন কালের কণ্ঠ’র নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকা এবং প্রতিনিধি, সিরাজগঞ্জ, কুড়িগ্রাম (আঞ্চলিক), কেরানীগঞ্জ, শাহজাদপুর, চুয়াডাঙ্গা, লক্ষ্মীপুর, মাধবপুর ও আদমদীঘি)



সাতদিনের সেরা