kalerkantho

শুক্রবার । ২ আশ্বিন ১৪২৮। ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১। ৯ সফর ১৪৪৩

কক্সবাজারে ইউএনজিএ সভাপতি

আমি কথা দিচ্ছি রোহিঙ্গাদের কথা নিউ ইয়র্কে বলব

বিশেষ প্রতিনিধি, ঢাকা ও কক্সবাজার    

২৭ মে, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



রোহিঙ্গা ইস্যুতে জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদ নীরব থাকলেও বেশ সরব সাধারণ পরিষদ (ইউএনজিএ)। সেই পরিষদের চলতি অধিবেশনের সভাপতি ভোলকান বোজকির গতকাল বুধবার কক্সবাজারে রোহিঙ্গা শিবির পরিদর্শনকালে অনেকটাই আবেগপ্রবণ হয়ে পড়েন।

দুই দিনের সফর শেষে বাংলাদেশ থেকে পাকিস্তানে যাওয়ার আগে টুইট বার্তায় বোজকির লিখেছেন, ‘আজ আমি কক্সবাজারে সহনশীলতার মুখোমুখি হয়েছি। জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদে আমরা প্রায়ই রোহিঙ্গাদের বিষয়ে কথা বলি। কিন্তু আজ আমি তাদের সঙ্গে কথা বলেছি। যাদের সঙ্গে আমি দেখা করেছি, তাদের দেওয়া কথা আমি রাখব। আমি তাদের কথা নিউ ইয়র্কে তুলে ধরব। সাধারণ পরিষদ রোহিঙ্গাদের কথা ভুলে যায়নি।’

অতিরিক্ত শরণার্থী ত্রাণ ও প্রত্যাবাসন কমিশনার (আরআরআরসি) মোহাম্মদ সামছু-দ্দৌজা সাংবাদিকদের বলেছেন, জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের সভাপতি রোহিঙ্গাদের সঙ্গে মতবিনিময়ের সময় আশ্বাস দিয়েছেন, তাদের মিয়ানমারে প্রত্যাবাসন ও অধিকার নিয়ে আলোচনা অব্যাহত রাখা হবে। মিয়ানমারের ওপর চাপ সৃষ্টির উদ্যোগও অব্যাহত থাকবে।

জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদের সভাপতি গতকাল সকাল ৯টায় কক্সবাজারে যান। তিনি উখিয়ার কুতুপালং ৪ নম্বর রোহিঙ্গা শিবিরে গিয়ে রোহিঙ্গা প্রতিনিধিদের সঙ্গে বৈঠক করেন। সে সময় তিনি বাংলাদেশে আশ্রয় নেওয়া রোহিঙ্গাদের নানা সমস্যার কথা শোনেন। রোহিঙ্গারা নিজ দেশে ফিরে যেতে জাতিসংঘের সহযোগিতা কামনা করে বলে জানিয়েছেন সেখানে উপস্থিত শরণার্থী ত্রাণ ও প্রত্যাবাসন কমিশনার শাহ্ রেজওয়ান হায়াত।

ভোলকান বোজকির পরে বালুখালী ৮ ডাব্লিউ ক্যাম্পের ওয়াচ টাওয়ার থেকে অগ্নিকাণ্ডে ক্ষতিগ্রস্তদের শিবির পর্যবেক্ষণ করেন। এরপর তিনি যান বালুখালী ৯ নম্বর রোহিঙ্গা শিবিরের তুর্কি হাসপাতালে। সে সময় তিনি রোহিঙ্গাদের মানবিক সহায়তার জন্য বাংলাদেশের সরকার ও জনগণের ভূয়সী প্রশংসা করেন বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্ট বাংলাদেশি কর্মকর্তারা।

জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের সভাপতি কক্সবাজার সফরের সময় তাঁর সঙ্গে ছিলেন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সচিব শাব্বির আহমেদ চৌধুরী, বাংলাদেশে তুরস্কের রাষ্ট্রদূত মোস্তফা ওসমান তুরান এবং আরআরআরসি কমিশনার শাহ্ রেজওয়ান হায়াত।



সাতদিনের সেরা