kalerkantho

শনিবার । ৯ শ্রাবণ ১৪২৮। ২৪ জুলাই ২০২১। ১৩ জিলহজ ১৪৪২

কিশোরী ও শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগে পৃথক মামলা

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

২৪ মে, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বগুড়ার ধুনট উপজেলায় অস্ত্রের মুখে স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে মামলা হয়েছে। ভুক্তভোগীর পরিবারের অভিযোগ, ধর্ষণের ঘটনার ভিডিও ইন্টারনেটে ছেড়ে দেওয়ার ভয় দেখিয়ে অভিযুক্ত যুবক চাঁদাও দাবি করেছেন। এদিকে ছয় বছরের এক শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগে মামলা হয়েছে কুড়িগ্রামের উলিপুরে। এ ছাড়া নেত্রকোনোর দুর্গাপুরে বিয়ের প্রলোভনে কিশোরীকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। মামলার এজাহারের বরাত দিয়ে ধুনট (বগুড়া) প্রতিনিধি জানান, রাঙামাটি গ্রামের রিমন ফকির (২২) ওই ছাত্রীকে প্রেমের প্রস্তাব দেন। রাজি না হওয়ায় গত ১৮ এপ্রিল তিনি ছাত্রীকে কৌশলে নিজের বাড়িতে ডেকে নিয়ে ধর্ষণ করেন। ধর্ষণের ঘটনা তাঁর তিন বন্ধু ভিডিও করেন। এরপর ওই ভিডিও ছড়িয়ে দেওয়ার কথা বলে ছাত্রীর মায়ের কাছে ৫০ হাজার টাকা চাঁদা দাবি করেন রিমন। মামলার এজাহারের বরাত দিয়ে উলিপুর (কুড়িগ্রাম) প্রতিনিধি জানান, গত শনিবার শিশুটি বাড়ির পাশে খেলছিল। ওই সময় অভিযুক্ত মঞ্জু মিয়া (৬৫) চকোলেটের লোভ দেখিয়ে শিশুটিকে পাশের একটি ফাঁকা বাড়িতে নিয়ে ধর্ষণ করেন। শিশুটির চিৎকারে আশপাশের লোকজন এগিয়ে এলে মঞ্জু পালিয়ে যান।

দুর্গাপুর (নেত্রকোনা) প্রতিনিধি জানান, কুল্লাগড়া ইউনিয়নের কামরুল ইসলামের সঙ্গে ভুক্তভোগীর সম্পর্ক ছিল। এক পর্যায়ে তাঁদের মধ্যে শারীরিক সম্পর্ক হয়। এতে ওই কিশোরী অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়ে। এ ঘটনা জানাজানি হলে গ্রামে সালিস বসে। সেখানে দুজনের বিয়ের সিদ্ধান্ত হয়। কিন্তু পরে কামরুলের পরিবার বিয়েতে অস্বীকৃতি জানায়। এ অবস্থায় থানায় ধর্ষণের অভিযোগ জানায় ভুক্তভোগীর পরিবার।