kalerkantho

শনিবার । ৫ আষাঢ় ১৪২৮। ১৯ জুন ২০২১। ৭ জিলকদ ১৪৪২

অসহায়ের মুখে হাসি ফোটাল ঈদ উপহার

অটোভ্যান পেয়ে উপার্জনের পথ খুলল কামালের

মাদারীপুর ও আঞ্চলিক প্রতিনিধি, গাজীপুর   

৮ মে, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ৪ মিনিটে



অসহায়ের মুখে হাসি ফোটাল ঈদ উপহার

কালের কণ্ঠ শুভসংঘের উদ্যোগে গতকাল গাজীপুরের শ্রীপুরে শতাধিক অসহায় মানুষের ঘরে পৌঁছে দেওয়া হয় ঈদ উপহার। ছবি : কালের কণ্ঠ

গাজীপুরের শ্রীপুর উপজেলার সাতখামাইর বাজারের ঝাড়ুদার নূরু (৬০) দীর্ঘদিন ধরে শয্যাশায়ী। তাঁর ঈদের আনন্দ নয়, পরিবারের সদস্যদের দুমুঠো ভাতের জোগাড় কিভাবে হবে, তা নিয়ে ছিল তাঁর দুশ্চিন্তা। গতকাল শুক্রবার সকালে শুধু চালই নয়, চিনিগুঁড়া চাল, সয়াবিন তেল, সেমাই, চিনি ও সাবান হাতে তাঁর ঘরে যান কালের কণ্ঠ শুভসংঘের বন্ধুরা। তাঁরা তাঁকে বলেন, চাচা, এসব আপনার ঈদ উপহার। বিছানা থেকে ওঠার সামর্থ্য নেই। এর পরও মাথা তুলে আনন্দে কান্নায় ভেঙে পড়েন নূরু।

শুধু নূরুই নন, দরিদ্র রোগী, দুস্থ বিধবা, প্রতিবন্ধী ব্যক্তি ও উপার্জনে অক্ষম শতাধিক জনের ঘরে পৌঁছে দেওয়া হয়েছে ওই ‘ঈদ উপহার’। তাঁরাও এসব পেয়ে খুশি। এদিকে মাদারীপুরে এক অসহায় পরিবারকে জীবিকা নির্বাহের জন্য শুভসংঘের পক্ষ থেকে কিনে দেওয়া হয়েছে একটি অটোভ্যান গাড়ি।

শ্রীপুরে ঈদ উপহার বিতরণের আগে সাতখামাইর উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে আলোচনাসভা অনুষ্ঠিত হয়। সেখানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন গাজীপুর জেলা আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী সদস্য শেখ আব্দুল লতিফ। এতে সভাপতিত্ব করেন শুভসংঘের শ্রীপুর উপজেলা শাখার ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মাজাহারুল ইসলাম হিরণ। শুভসংঘের শরিফুল ইসলামের সঞ্চালনায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য দেন সোনার বাংলা ইনস্যুরেন্স কম্পানি লিমিটেডের অতিরিক্ত ব্যবস্থাপনা পরিচালক এমদাদুল হক, শ্রীপুর প্রেস ক্লাবের সাবেক সাধারণ সম্পাদক শফিকুল ইসলাম, গাজীপুর জেলা ছাত্রলীগের বিজ্ঞান ও তথ্য প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক মাহবুব হাসান প্রমুখ। অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সাতখামাইর উচ্চ বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক লিয়াকত আলী দুলাল, বরমী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ নেতা সিরাজ উদ্দিন মণ্ডল, বিশিষ্ট সমাজসেবী শাখাওয়াত হোসেন, টেপিরবাড়ী উচ্চ বিদ্যালয়ের জ্যেষ্ঠ শিক্ষক সেলিম আহমেদ, সমাজসেবী জাহাঙ্গীর আলম মণ্ডল, যুবলীগ নেতা পিন্টু আকন্দ, ছাত্রলীগ নেতা কাইয়ুম শেখ, আবীর মাহমুদ প্রমুখ।

বক্তব্যে শেখ আব্দুল লতিফ বলেন, ‘শুভসংঘের উদ্যোগে এর আগেও শ্রীপুরে অনেক মানবিক কাজ দেখেছি। আমি সাধারণ মানুষের জন্য কাজ করি। আমার নেতা গাজীপুর-৩ আসনের সংসদ সদস্য মুহাম্মদ ইকবাল হোসেন সবুজ মানবিক আধুনিক উপশহর প্রতিষ্ঠায় নিরলস কাজ করছেন। শুভসংঘের প্রতিটি শুভ কাজে আমাকে পাবেন। সাধারণ মানুষের জন্য যেকোনো ত্যাগ স্বীকারে প্রস্তুত আমি।’

মাদারীপুর সদর উপজেলার ঝাউদি ইউনিয়নের হোগলপাতিয়া গ্রামের আছমা বেগম ও তাঁর স্বামী কামাল শরীফ তাঁদের ছোট তিন সন্তান নিয়ে খেয়ে না খেয়ে জীবন যাপন করছিলেন। করোনাভাইরাস পরিস্থিতিতে দেনার টাকা শোধ করতে তাঁদের আয়ের একমাত্র সম্বল ভ্যানগাড়িটি বিক্রি করে দেন কামাল। বিদ্যুৎ বিল দিতে না পারায় তাঁদের সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেওয়া হয়। এভাবেই তাঁরা দিনে দিনে অসহায় হয়ে পড়েন। এমন সংবাদ শুনে শুভসংঘের সদস্য কে এম জুবায়ের জাহিদ তাঁর ব্যক্তিগত ফেসবুকে পোস্ট দেন। তা দেখে এগিয়ে আসেন মাদারীপুর সদর হাসপাতালের মেডিক্যাল অফিসার ডা. মোহাম্মাদ সোহেল-উজ-জামান। তাঁর নেতৃত্বে ফেসবুক বন্ধুদের সহযোগিতায় ৪৪ হাজার টাকা দিয়ে কামাল শরীফের কর্মসংস্থানের জন্য একটি অটোভ্যান গাড়ি তৈরি করা হয়। সেই ভ্যানটি গতকাল বিকেলে শুভসংঘের পক্ষ থেকে মাদারীপুর শকুনি লেকের পারে আনুষ্ঠানিকভাবে কামাল শরীফের পরিবারের হাতে তুলে দেওয়া হয়।

এ সময় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মাদারীপুর সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. সাইফুদ্দিন গিয়াস। বিশেষ অতিথি ছিলেন ডা. মোহাম্মাদ সোহেল-উজ-জামান। আরো ছিলেন শুভসংঘ মাদারীপুর শাখার উপদেষ্টা সাংবাদিক এস এম আরাফাত হাসান, পাশে আছি মাদারীপুরের প্রতিষ্ঠাতা বাইজীদ মিয়া, ধ্রুবতারা পরিবারের রুবেল তালুকদার, শুভসংঘের রাকিব হাসান বকুল, কে এম জুবায়ের জাহিদ, পূজা সরকার, রাশেদ আবদুল্লাহ, নাজিম, রবিউল প্রমুখ।

কামাল শরীফ বলেন, ‘এখন অটোভ্যানটি পেয়ে আয় করতে পারব। তা দিয়ে সন্তানদের মুখে খাবার দিতে পারব। এই গাড়িটি আমাদের পরিবারের জন্য কী, তা বোঝাতে পারব না।’

ইউএনও বলেন, ‘শুভসংঘ সব সময়ই অসহায়দের পাশে থেকে কাজ করে। শুভসংঘ আরো এগিয়ে যাক, এই কামনা করি।’



সাতদিনের সেরা