kalerkantho

শনিবার । ৫ আষাঢ় ১৪২৮। ১৯ জুন ২০২১। ৭ জিলকদ ১৪৪২

ক্ষেতমজুর সমিতির মানববন্ধন

ক্ষেতমজুরদের জন্য খাদ্য-অর্থ-চিকিৎসা সহায়তা দাবি

নিজস্ব প্রতিবেদক   

৬ মে, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বাংলাদেশ ক্ষেতমজুর সমিতির নেতারা বলেছেন, করোনা পরিস্থিতিতে কর্মহীন হয়ে দেশের সংখ্যাগরিষ্ঠ ক্ষেতমজুরসহ গ্রামীণ মজুরদের পরিবার নিয়ে বেঁচে থাকা কঠিন হয়ে পড়েছে। এ অবস্থায় লকডাউন চলাকালীন ক্ষেতমজুরসহ সব গ্রামীণ মজুর ও দরিদ্র মানুষের ঘরে পর্যাপ্ত খাদ্যের নিশ্চয়তা এবং নগদ অর্থ ও চিকিৎসা সহায়তা দিতে হবে।

গতকাল বুধবার জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশে এসব দাবি তুলে ধরেন সংগঠনের নেতারা। ক্ষেতমজুর সমিতির সভাপতি ডা. ফজলুর রহমানের সভাপতিত্বে সমাবেশে বক্তব্য দেন সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট আনোয়ার হোসেন রেজা, নির্বাহী কমিটির সদস্য মোতালেব হোসেন ও কল্লোল বণিক, যুব ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক খান আসাদুজ্জামান মাসুম, হকার্স আন্দোলনের নেতা মুর্শিকুল ইসলাম শিমুল এবং ছাত্র ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক দীপক শীল। সমাবেশ পরিচালনা করেন সংগঠনের সহসাধারণ সম্পাদক অর্ণব সরকার।

সমাবেশে নেতারা বলেন, করোনা মোকাবেলায় লকডাউন একটি কার্যকর পদক্ষেপ। কিন্তু লকডাউন কার্যকরের জন্য সাধারণ গরিব শ্রমজীবী মানুষের ঘরে খাদ্য পৌঁছানোর ব্যবস্থা নেই। তাই মানুষ লকডাউনের মধ্যেও জীবনের ঝুঁকি নিয়ে কাজের আশায় ঘর থেকে বের হচ্ছে। ফলে তাদের করোনায় আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা বাড়ছে। একদিকে ক্ষুধার যন্ত্রণা, অন্যদিকে করোনায় মৃত্যুকে সঙ্গী করেই এসব গরিব অসহায় মানুষের জীবন চলছে।

নেতারা আগামী বাজেটে গ্রামীণ শ্রমজীবী মানুষের জন্য সর্বোচ্চ বরাদ্দ রাখার জোর দাবি জানিয়ে বলেন, গরিব মানুুষের তালিকা করে তাদের সবাইকে পল্লী রেশনিংয়ের আওতায় আনতে হবে। তাদের সারা বছর কন্ট্রোল দামে রেশন দিতে হবে।



সাতদিনের সেরা