kalerkantho

সোমবার । ১১ শ্রাবণ ১৪২৮। ২৬ জুলাই ২০২১। ১৫ জিলহজ ১৪৪২

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়

দুর্নীতিবিরোধী শিক্ষকদের গুলি করার হুমকি

রাজশাহী অফিস   

৫ মে, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) সিন্ডিকেট সভাকে কেন্দ্র করে দুর্নীতিবিরোধী শিক্ষকদের সঙ্গে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের হট্টগোল হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার সকালে রাবির উপাচার্যের বাসভবনের সামনে এ ঘটনা ঘটে। এ সময় সংগঠনটির এক কর্মী ওই শিক্ষকদের গুলি করার হুমকি দেন বলে অভিযোগ উঠেছে। উত্তেজনাকর পরিস্থিতি সৃষ্টি হওয়ায় এক পর্যায়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার আব্দুস সালাম সিন্ডিকেট সভা স্থগিতের ঘোষণা দেন।

গত রবিবার উপাচার্যের ‘অনিয়ম ও দুর্নীতি রুখতে’ রাবি শাখা ছাত্রলীগের সাবেক ও বর্তমান কমটির নেতাকর্মীরা উপাচার্য ভবন, প্রশাসনিক ভবন ও সিনেট ভবনে তালা ঝুলিয়ে দেন। অথচ দুই দিন পরই ‘অবৈধ গণনিয়োগ’ হতে পারে—এমন আশঙ্কা থাকার পরও সেই সিন্ডিকেট সভা নির্বিঘ্নে সম্পন্ন করতে ছাত্রলীগেরই প্রশাসনের পক্ষে অবস্থান নেওয়ার মতো ঘটনা ঘটল। আগামীকাল বৃহস্পতিবার বর্তমান উপাচার্যের মেয়াদ শেষ হবে।

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, গতকাল সকাল ১০টায় রাবি উপাচার্য আব্দুস সোবহানের বাসভবনে সিন্ডিকেট সভা আহ্বান করা হয়। মেয়াদের শেষ মুহূর্তে এসে উপাচার্য শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের নিষেধাজ্ঞার পরও সিন্ডিকেট সভায় পছন্দের প্রার্থীদের অ্যাডহকে ‘গণনিয়োগ’ দেওয়ার জোর চেষ্টা চালাচ্ছেন বলে অভিযোগ ওঠে। এরই পরিপ্রেক্ষিতে দুর্নীতিবিরোধী শিক্ষকরা উপাচার্যের সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে তাঁর বাসভবনে প্রবেশের চেষ্টা করলে সেখানে আগে থেকেই অবস্থান করা ছাত্রলীগের নেতাকর্মী ও চাকরিপ্রত্যাশীরা তাঁদের বাধা দেন। এ সময় উভয় পক্ষের মধ্যে উত্তপ্ত বাক্যবিনিময় এবং শিক্ষক লাঞ্ছনার ঘটনাও ঘটে। এরই মধ্যে সংগঠনের নেতাকর্মীদের ভেতর থেকে একজন শিক্ষকদের উদ্দেশে ‘গুলি করে দিব কিন্তু স্যার একবারে’ বলে মন্তব্য করেন। তখনই পাশ থেকে আরেকজন বলেন, ‘এই, গুলি করার কথা বলবা না।’

জানা গেছে, হুমকি দেওয়া ওই ছাত্রলীগকর্মীর নাম আকাশ। বিশ্ববিদ্যালয়সংলগ্ন মেহেরচণ্ডী এলাকায় তাঁর বাড়ি।

দুর্নীতিবিরোধী শিক্ষকসমাজের আহ্বায়ক অধ্যাপক সুলতান-উল-ইসলাম টিপু অভিযোগ করে বলেন, ‘বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন বহিরাগতদের নিয়ে এসে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির চেষ্টা করছে। এই বহিরাগতরা লাঠিসোঁটা নিয়ে এসেছে। উপাচার্য তাঁর উদ্দেশ্য সাধনের জন্য এদের নিয়ে এসেছেন। তারা বিশ্ববিদ্যালয়ের অভ্যন্তরে আমাদের গুলি করার হুমকি দিচ্ছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের কার্যক্রমে বহিরাগতরা হস্তক্ষেপ কেন করবে?’

এ বিষয়ে মন্তব্য জানতে ঘটনাস্থলে থাকা ছাত্রলীগ নেতাকর্মীদের সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করেও তাঁদের পাওয়া যায়নি। তবে গুলির হুমকি দেওয়ার বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর লুৎফর রহমান বলেন, এটি বড় ধরনের অপরাধ। এ ব্যাপারে কোনো ব্যবস্থা নেওয়া হবে কি না, জানতে চাইলে তিনি বিষয়টি এড়িয়ে যান।